BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২২ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

বাবার অনিচ্ছাকৃত ভুলের মাশুল দিল দুধের শিশু

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 6, 2016 3:46 pm|    Updated: July 6, 2016 3:46 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাবার অনিচ্ছাকৃত ভুলে প্রাণ হারাল আট মাসের শিশু৷ ঘটনায় গ্রেফতার হলেন বাবা৷ গ্রেনাডার আদালতে অভিযুক্ত বাবার বিচার চলছে৷

চলতি বছর ১৯ মে ঘটে এই ঘটনা৷ বান্ধবী ও আট মাসের মেয়েকে নিয়ে গাড়িতে উঠেছিলেন ব্লান্ট৷ বান্ধবীকে কাজের জায়গায় নামানোর পর মেয়েকে বান্ধবীর মায়ের কাছে রেখে আসার কথা ছিল ব্লান্টের৷ কিন্তু বান্ধবীকে নামিয়ে সোজা নিজের অফিসে চলে যান তিনি৷ মেয়ে যে পিছনের সিটে রয়ে গেল, সেকথা খেয়ালই ছিল না তাঁর৷ ঘণ্টা চারেক পর এক সহকর্মীর সঙ্গে একই গাড়িতে ওঠেন ব্লান্ট৷ তখনই সহকর্মীর নজরে পড়ে ছোট্ট শানিয়া গাড়ির পিছনের সিটে শুয়ে রয়েছে৷ গোটা ঘটনা মনে পড়তেই আঁতকে ওঠেন শানিয়ার বাবা৷ তড়িঘড়ি মেয়েকে হাসপাতালে নিয়ে যান তিনি৷ প্রায় এক ঘণ্টার চেষ্টার পর চিকিৎসকরা জানিয়ে দেন, শানিয়াকে বাঁচানো সম্ভব হল না৷ গাড়ির গরমে এতটা সময় থাকার কারণেই মৃত্যু হয়েছে ছোট্ট শিশুটির৷

নিজের ভুলে মেয়েকে তো হারালেনই, হাতে হাতকড়াও পড়তে হল৷ মঙ্গলবার তাঁকে গ্রেনাডার আদালতে পেশ করা হয়েছিল৷ সেখানে ব্লান্টকে নির্দোষ বলে দাবি করে সাজা মকুব করার অনুরোধ জানান তাঁর আইনজীবী৷ তবে এদিন আদালত মামলার রায় ঘোষণা করেনি৷ সেদিন সন্ধেয় ১৫ হাজার ডলারের বিনিময়ে বন্ডে সই করিয়ে ব্লান্টকে গ্রেনাডা কাউন্টি জেলে নিয়ে যাওয়া হয়৷ এর আগে মেয়ের শেষকৃত্যে উপস্থিত থাকতে ২৫ হাজার ডলার জরিমানা দিয়ে জামিন পেয়েছিলেন তিনি৷ অনিচ্ছাকৃত মৃত্যুর অভিযোগে সর্বোচ্চ একমাসের কারাবাস হতে পারে ব্লান্টের৷ তবে বিপক্ষের আইনজীবী তাঁর বিরুদ্ধে অন্য কোনও অভিযোগ আনলে ২ থেকে ২০ বছরও জেল হতে পারে তাঁর৷

মেয়ের হত্যাকারী হিসেবে ব্লান্টের দিকে অভিযোগের আঙুল তোলা হলেও আত্মীয় পরিজনরা তাঁর পাশেই রয়েছেন৷ তাঁদের বক্তব্য, জেনে বুঝে এমন অন্যায় ব্লান্ট করেননি৷ সেই কারণে তাঁর জামিনের জন্য প্রতিবেশীরাই অর্থ জোগাড় করেছিলেন৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement