BREAKING NEWS

১৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বুধবার ১ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

হারিকেন ইরমার তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড ফ্লোরিডায় মৃত ৩, নিরাপদে ভারতীয়রা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: September 11, 2017 4:31 am|    Updated: September 11, 2017 4:31 am

Hurricane Irma hits Florida, 3 dead

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার উপকূলে আছড়ে পড়ল হারিকেন ইরমা৷ ঘণ্টায় দুশো কিলোমিটারের উপর গতিবেগে ধেয়ে আসে এই ঘূর্ণিঝড়। এখনও পর্যন্ত তিনজনের মৃত্যুর খবর মিলেছে। গতি বাড়িয়ে ইরমার আরও ভয়ঙ্কর আকার নিতে পারে বলেও আশঙ্কা আবহবিদদের।

ddd

উদ্বেগ ছিলই। তবে বাস্তবটা যে কতটা ভয়াবহ হতে পারে তা টের পাওয়া যায় শনিবার রাত থেকেই। ফ্লোরিডার দক্ষিণ উপকূলে আছড়ে পড়ে ঘূর্ণিঝড় ইরমা। সঙ্গে প্রবল বৃষ্টি। সমুদ্রের উপর দিয়ে ধেয়ে আসায়, জলোচ্ছ্বাসে ভেসে যায় উপকূলবর্তী এলাকা। অনেক বাড়িতেও জল ঢুকে যায়। বহু মানুষকে নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তাঁদের মধ্যে প্রচুর ভারতীয়ও আছেন। উপকূলবর্তী এলাকায় জারি হয়েছে চরম সতর্কতা। ইতিমধ্যেই কিউবায় ইরমার তাণ্ডবে মারা গিয়েছেন পঁচিশজন। ফ্লোরিডাতেও মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

photo-1505072810

ন্যাশনাল হারিকেন সেন্টার জানিয়েছে, ক্যাটাগরি ৪ মাত্রার শক্তিসম্পন্ন ইরমার গতিবেগ ২১০ কিলোমিটার৷ ফ্লোরিডায় আঘাত হানার আগে অল্পসময়ের জন্য হারিকেন ইরমা কিছুটা দুর্বল হয়ে পড়লেও, এখন আবার শক্তিসঞ্চয় করেছে৷এর আগে আবহাওয়াবিদরা মনে করেছিলেন, ইরমার সরাসরি গন্তব্য হতে পারে মিয়ামি, যেখানে ৫৫ লাখের মতো মানুষ বাস করেন। হাজার হাজার মানুষ ইতিমধ্যেই গৃহহীন, এলাকা বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন। ফ্লোরিডা ও জর্জিয়া থেকে ৬০ লাখেরও বেশি মানুষকে অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া হয়েছে৷

হারিকেন ইরমা আঘাত হানার আগে ফ্লোরিডার ৫৬ লাখের মতো মানুষকে অন্যত্র সরে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল৷ জর্জিয়া থেকে সরিয়ে নেওয়া হয় পাঁচ লাখের বেশি মানুষকে৷ প্রসঙ্গত, ইরমা এখনও পর্যন্ত রেকর্ডে থাকা সবচেয়ে বড় অ্যাটলান্টিক হারিকেন। আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে খবর ফ্লোরিডার দক্ষিণ-পূর্ব উপকূলে প্রায় ৬ থেকে ১২ ফুট অবধি উঁচু ঢেউ সৃষ্টি হয়েছে।

FILE PHOTO: Waves crash against the seafront boulevard El Malecon ahead of the passing of Hurricane Irma, in Havana, Cuba September 9, 2017. REUTERS/Stringer NO SALES. NO ARCHIVES/File Photo

মিয়ামি শহরের বেশিরভাগ এলাকা জলমগ্ন। জলোচ্ছ্বাসে শহরের রাস্তায় প্রায় ২ফুট জলের স্তর। বিদ্যুৎহীন শহরটির প্রায় ১০ লক্ষ ঘর-বাড়ি। এছাড়া সেখানের এক লাখ বাসিন্দাকে নিরাপদে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। টাম্পা ও সেন্ট পিটার্সবার্গের মতো ফ্লোরিডার অন্য শহরগুলোতে ঝড় মোকাবিলায় বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। টাম্পা শহর ১৯২১ সালের পর থেকে বড় কোনও ঘূর্ণিঝড়ের মুখোমুখি হয়নি। অচেনা দুর্যোগে আক্ষরিক অর্থেই শহরের বাসিন্দা দিশাহীন।

এর আগে শুক্রবার রাতে ফ্লোরিডার সীমান্তবর্তী দেশ কিউবার সাবানা-ক্যামাগুয়ে দ্বীপপুঞ্জে প্রবল বেগে আঘাত হানে হ্যারিকেনটি। যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় হ্যারিকেন কেন্দ্রের মতে, কিউবা ছেড়ে ফ্লোরিডা আসার পরপরই ইরমা আবার আগের রূপে ফিরতে পারে।গত সপ্তাহে ক্যারাবিয়ান দ্বীপপুঞ্জে ইরমার আঘাতে কমপক্ষে ২৭ জন মারা যান। আহত হয় আরো বহু মানুষ।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে