৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

কুলভূষণ ইস্যুতে পাকিস্তানের জারিজুরি ফাঁস বালোচ নেতার

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 19, 2018 1:50 pm|    Updated: January 19, 2018 1:50 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের ফাঁস ‘চপ্পল চোর’ পাকিস্তানের কারসাজি। কুলভূষণ ইস্যুতে ভারতের দাবিতেই সিলমোহর দিলেন জনপ্রিয় বালোচ নেতা। তিনি জানান, ইরান থেকেই অপহরণ করা হয় ভারতীয় নৌসেনার প্রাক্তন কর্মীকে। ওই কাজের জন্য তালিবান জঙ্গিনেতা মোল্লা ওমর বালোচ ইরানিকে প্রচুর টাকা দেয় কুখ্যাত পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই।

[‘পাকিস্তানে ঢুকে মারো, পাশে আছি’, মোদিকে আশ্বাস নেতানিয়াহুর]

পাকিস্তানের মুখোশ খুলে দিয়েছেন বিক্ষুব্ধ বালোচ নেতা মামা কাদির। তালিবানের সঙ্গে পাক সেনা ও আইএসআইয়ের আঁতাঁত ফাঁস করে দেন তিনি। তিনি জানান, পাক গুপ্তচর সংস্থার নির্দেশেই ইরানের চাবাহার শহর থেকে অপহরণ করা হয় কুলভূষণকে। তাঁর হাত, চোখ বেঁধে ধাক্কা দিতে দিতে গাড়িতে তোলা হয়। এরপর ইরান-বালোচিস্তানের সীমান্ত শহর মাসখেলে বন্দি করে রাখা হয় যাদবকে। সেখান থেকে তাঁকে কোয়েটা নিয়ে যাওয়া হয়। তারপর যাদবকে ইসলামাবাদে নিয়ে যাওয়া হয় বলেও জানিয়েছেন ওই বিক্ষুব্ধ বালোচ নেতা।

ওই বালোচ বিদ্রোহী জানান, বালোচিস্তানে অকথ্য, পাশবিক নির্যাতন চালাচ্ছে পাক সেনা। প্রতিবাদের শব্দ হারিয়ে যাচ্ছে গুলির আওয়াজে। অনেক বালোচই শিকার হয়েছেন গুপ্তঘাতকের। আজ পর্যন্ত তাঁদের মৃতদেহ খুঁজে পাওয়া যায়নি। উল্লেখ্য, নিখোঁজ বালোচদের খোঁজ চালায় মামা কাদিরের সংস্থা। ওই অঞ্চলে ২৮টি পর্যবেক্ষক রয়েছে সংস্থাটির। তাঁরা জানায়, কুলভূষণ বালোচিস্তানে কখনওই আসতে পারেন না। কারণ, সেখানে আইএসআইয়ের নজর এড়িয়ে মাছিও ঢুকতে পারে না। ফলে যাদবকে ফাঁসানো হচ্ছে তা স্পষ্ট।

গত ৩ মার্চ ইরান থেকে বালোচিস্তান আসার পর কুলভূষণ যাদবকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে দাবি করেছে পাকিস্তান। যদিও, ইসলামাবাদের এই দাবিকে সম্পূর্ণ মিথ্যে বলেই পালটা দাবি ভারতের। এবার বালোচ নেতার বয়ানে পাকিস্তানের ষড়যন্ত্র ফাঁস হয়ে গিয়েছে। তবে এই তথ্য প্রকাশ্যে আসলেও নিজের অবস্থান থেকে নড়বে না ইসলামাবাদ বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

[‘চপ্পল চোর পাকিস্তান’, কুলভূষণ কাণ্ডে ঘুড়ি উড়িয়ে প্রতিবাদ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement