১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘আনুগত্য’ না দেখানোয় ২ মন্ত্রীকে নৃশংসভাবে খুন করলেন কিম

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: September 1, 2016 10:54 am|    Updated: September 1, 2016 10:54 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের কিমের কুকীর্তি৷ ক্রোধ, উত্তেজনা আর খামখেয়ালির নতুন উদাহরণ তৈরি করলেন উত্তর কোরিয়ার শাসক৷ তাই ‘বেয়াদবি’র অভিযোগে এবার অ্যান্টি এয়ারক্র্যাফট গানের ডগায় হাত-পা বেঁধে দুই মন্ত্রীকে উড়িয়ে দেওয়ার হুকুম দিলেন তিনি৷ হুকুম করা মাত্র তা তামিলও করা হল৷

একদা তাঁর দুই অনুগামীর দেহ ছিন্নভিন্ন করে দিলেন ৩৪ বছরের কিম৷ তাঁদের অপরাধ, তাঁরা কোনও একটি বৈঠকে কমিউনিস্ট একনায়ক তথা উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে ঠিকঠাক অভিবাদন জানাননি এবং ‘যথেষ্ট সম্মান ও আনুগত্য’ দেখাননি৷ ‘সন্তোষজনক আনুগত্য’ না দেখানোয় দুই মন্ত্রীই ‘বিদ্রোহী ও বিশ্বাসঘাতক’ বলে সন্দেহ দেখা দেয় কিমের মনে৷ তাই ঝুঁকি না নিয়ে পত্রপাঠ ফায়ারিং স্কোয়াডে পাঠানো হয় দুই বৃদ্ধ মন্ত্রীকে৷

তবে মৃত্যুদণ্ডের কায়দাটা একটু অভিনব করা হল৷ বিমান বিধ্বংসী বন্দুক বা অ্যান্টি এয়ারক্র্যাফট গানের সামনে রেখে টুকরো টুকরো করে দেওয়া হল ‘একদা বিশ্বস্ত’ দুই কমরেডকে৷ ২০১১ সালে বাবা কিম জং ইলের মৃত্যুর পর নিজের হাতে দেশের শাসন ক্ষমতা হাতে তুলে নেন উত্তর কোরিয়ার কিম জং উন৷ সাম্প্রতিক অতীতে পরিবারের সদস্যদের ঘনিষ্ঠ অনুগামীদের নৃশংসভাবে হত্যা করে খবরের শিরোনামে আসেন প্রবল বিতর্কিত এই রাষ্ট্রনায়ক৷ একের পর এক পরমাণু পরীক্ষা, হাইড্রোজেন বোমার পরীক্ষা ও দূরপাল্লার মিসাইল পরীক্ষা চালিয়ে তিনি দুনিয়ার কাছে মূর্তিমান আতঙ্ক৷ আমেরিকা, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়াকে পরমাণু হামলা চালিয়ে গুঁড়িয়ে দেওয়ার হুমকিও দিয়েছেন কিম৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement