১৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ৫ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

রাজনীতির স্বার্থে ব্যবহার করা হচ্ছে তাঁকে, কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তোপ পলাতক মালিয়ার

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 9, 2018 7:33 pm|    Updated: July 9, 2018 7:33 pm

Loan defaulter Vijay Mallya accuses centre of vote bank politics

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাজনীতির স্বার্থে ব্যবহার করা হচ্ছে তাঁকে৷ ভারতে ফিরিয়ে এনে তাঁকে রাজনীতির ঘুঁটি হিসাবে ব্যবহার করতে চাইছে সরকার৷ ঠিক এই ভাষাতেই কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে দুষলেন ঋণখেলাপি মামলায় অভিযুক্ত ভারতীয় লিকার ব্যারন বিজয় মালিয়া৷ দেশ থেকে পালিয়ে গিয়ে যিনি বর্তমানে বসবাস করছেন লন্ডনে৷ যাঁকে দেশে ফিরিয়ে আনতে প্রবল চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে কেন্দ্র৷

[থাইল্যান্ডে খুদে ফুটবলারদের উদ্ধারে নামছে ‘মিনি সাবমেরিন’]

কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে এই পলাতক লিকার ব্যারনের অভিযোগ, ২০১৯-এর লোকসভা ভোটের আগে তাঁকে দেশে ফিরিয়ে এনে ভোটব্যাংক মজবুত করতে চায় সরকার৷ দেশের মানুষের সামনে তাঁকে রাজনৈতিক উদ্দেশে ব্যবহার করাই কেন্দ্রের মতলব৷ কেবল কেন্দ্রের সমালোচনা করেই ক্ষান্ত থাকেননি এই শিল্পপতি৷পাশাপাশি নিজের দোষ ঢাকতে স্বপক্ষে তুলে ধরেছেন একাধিক যুক্তি৷ ভারতীয় নয় নিজেকে ব্রিটেনের বাসিন্দা হিসেবে দাবি করেছেন মালিয়া। ফলে ভারত থেকে ব্রিটেনে পালিয়ে যাওয়ার বক্তব্যকে কোনও মতেই মানতে নারাজ এই লিকার ব্যারন৷ তার সংযোজন, আদালতের রায় শোনার পর তিনি নাকি আদালতকে জানিয়েছেন ব্রিটেনে তার যে সম্পত্তি রয়েছে তা নিজের হাতেই আদালতের হাতে তুলে দেবেন তিনি৷

[অকেজো শরীর, তবু সুরের জাদুতে মার্কিন মুলুকে ঝড় তুলেছে এই প্রবাসী কিশোর]

কয়েকদিন আগেই, তাঁর বিরুদ্ধে কঠোর রায় দিয়েছে ব্রিটেন হাই কোর্ট৷ ঋণখেলাপ করার অভিযোগে স্টেট ব্যাংক-সহ মোট ১৩টি ভারতীয় ব্যাংককে ২ লক্ষ পাউন্ড ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে মালিয়াকে৷ ২০১৬ সালে যখন ভারত থেকে ব্রিটেনে পালিয়ে গিয়েছিলেন বিজয় মালিয়া, তখনই তাঁর কাছ থেকে ভারতীয় ব্যাংকগুলির পাওনা ছিল ৯ হাজার কোটি টাকা। কেবল ক্ষতিপূরণই নয় পাশাপাশি, সমগ্র বিশ্বে মালিয়ার ছড়িয়ে থাকা সম্পত্তিও বাজেয়াপ্ত করার নির্দেশ বহাল রেখেছে ব্রিটেনের আদালত৷ জানিয়েছে, মালিয়ার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করতে পারবেন এনফোর্সমেন্ট অফিসাররা। প্রয়োজন পড়লে মালিয়ার মালিকানাধীন জায়গায় প্রবেশও করতে পারবেন তদন্তকারীরা৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে