BREAKING NEWS

০৯  আষাঢ়  ১৪২৯  রবিবার ২৬ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

দুর্ঘটনাগ্রস্ত ট্যাঙ্কার থেকে তেল চুরির হিড়িক, বিস্ফোরণে পাকিস্তানে মৃত্যুমিছিল

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 25, 2017 6:22 am|    Updated: June 25, 2017 6:25 am

 Massive explosion in Pakistan, over 120 killed

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কথায় আছে, ‘লোভে পাপ, পাপে মৃত্যু’। আর চলতি কথাটিই ফের একবার প্রমাণিত হল, পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের অন্তর্গত ভাওয়ালপুরের আহমেদপুর সারকিয়া এলাকায় ঘটে যাওয়া দুর্ঘটনাটিতে। তেলের ট্যাঙ্কার উলটে গিয়েছে। আর সেখান থেকে তেল সংগ্রহ করছেন সাধারণ মানুষ। উপস্থিত প্রায় দুই শতাধিক লোক। এমন সময় ঘটে বিস্ফোরণ। আর তাতেই মারা গেলেন ১২৩ জন। আহত ১০০ জনেরও বেশি লোক। ভয়াবহ এই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার সকালে।

[রথযাত্রার দিন রাজ্য জুড়ে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস]

জানা গিয়েছে, এদিন সকালে হঠাৎই উলটে যায় একটি তেল ভরতি ট্যাঙ্কার। ট্যাঙ্কারটি থেকে লাগাতার তেল পড়তে থাকায় শিশু,মহিলা-সহ আশপাশের বহু লোক সেখানে ভিড় করতে থাকেন। তাঁদের অনেকেই তেল নিয়ে যাচ্ছিলেন। ঠিক এই সময় ঘটে বিপত্তি। চারিদিকে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা তেলেই কোনওপ্রকারে আগুন লেগে যায়। আর তা থেকেই ঘটে বিস্ফোরণ। সেটির তীব্রতা এতটাই বেশি ছিল যে ঘটনাস্থলেই মারা যান অনেকে। এছাড়া পুড়ে যায় ছ’টি গাড়ি ও ১২ টি মোটরবাইক। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে দমকল ও উদ্ধারকারী দল। দমকলেরর দু’টি ইঞ্জিনের প্রচেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। এরমধ্যেই আহতদের উদ্ধার করে পার্শ্ববর্তী জেলা সদর হাসপাতাল এবং একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। উদ্ধারকারী দল জানিয়েছে, বেশিরভাগ মৃতদেহই এতটা পুড়ে গিয়েছে যে চেনাও যায়নি।

[পাকিস্তানকে সমর্থন করায় ধৃত ভারতীয় যুবক, মুখ ফেরালেন আইনজীবীরাও]

গোটা ঘটনায় এলাকায় ছড়িয়েছে চাঞ্চল্য। মনে করা হচ্ছে, ট্যাঙ্কার থেকে বেরিয়ে আসা তেল সংগ্রহ করতে গিয়েই ওখানে এত বেশি লোক জড়ো হয়েছিল। আর সে কারণেই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। সংখ্যা আরও বাড়বে বলেই মনে করা হচ্ছে, কারণ আহতদের অনেকের অবস্থাই বেশ আশঙ্কাজনক। এই ঘটনার পর শোকপ্রকাশের পাশাপাশি পূর্ণাঙ্গ তদন্তের নির্দেশও দিয়েছেন পাক-পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ। শুধু তাই নয়, সমস্ত রকম সাহায্যের আশ্বাসও দিয়েছেন তিনি। এছাড়া শোকপ্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ থেকে শুরু করে পাক সেনাপ্রধান কামার বাজওয়া-সহ আরও অনেকেই। ইদের আগেই এই ঘটনায় সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমেও অনেকে শোকজ্ঞাপন করেছেন। এদিকে, উদ্ধারকার্যের জন্য সেনার পক্ষ থেকে  পাঠানো হয়েছে হেলিকপ্টার। এলাকার সমস্ত হাসপাতালগুলিকেও ইতিমধ্যে তৈরি থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে