৩০ চৈত্র  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১৩ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

মাইক্রোসফটে সপ্তাহে তিনদিন ছুটি, উৎপাদন বাড়ল ৪০ শতাংশ!

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: November 6, 2019 8:18 am|    Updated: November 6, 2019 8:18 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সাপ্তাহিক ছুটি বাড়ান। কর্মীদের কাছ থেকে আরও ভাল কাজ পাবেন। সংস্থার মালিকপক্ষকে এমনটাই জানাচ্ছে নতুন পরীক্ষার ফল। শুধু কথার কথা নয়। পরীক্ষা করেই মিলেছে ফল। গত আগস্ট মাসে পরীক্ষামূলক ভাবে সপ্তাহে তিন দিন করে ছুটি চালু করা হয়েছিল জাপানের মাইক্রোসফটের অফিসে।

শনিবার আর রবিবারের সঙ্গে শুক্রবারও সংস্থার প্রায় ২,৩০০ কর্মীকে ছুটি দেওয়া হয়েছিল। অনেকেই আশঙ্কা করেছিলেন, এই সিদ্ধান্তের ফলে হয়তো মুখ থুবড়ে পড়তে পারে সংস্থার উৎপাদন ব্যবস্থা। কিন্তু এক মাস পর অপ্রত্যাশিত ফল মিলেছে! দেখা গিয়েছে, আগের থেকে উৎপাদন বেড়েছে প্রায় ৪০ শতাংশ। একই সঙ্গে বিভিন্ন খাতে খরচ কমে সংস্থার সাশ্রয় হয়েছে প্রায় ২৩ শতাংশ।

কর্মীদের সপ্তাহে তিনদিন করে ছুটি দেওয়ার এই অভিনব উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে জাপানের মাইক্রোসফটে। জানা গিয়েছে, আগস্ট মাসে কর্মসংস্কার প্রকল্পের অংশ হিসেবে পরীক্ষামূলক ভাবে এক মাসের জন্য সপ্তাহে তিনদিন করে ছুটি চালু করা হয়েছিল। এই কর্মসংস্কার প্রকল্পের নাম দেওয়া হয় ‘ওয়ার্ক-লাইফ চয়েস চ্যালেঞ্জ সামার-২০১৯’। এর আগেও দ্য বিজনেস জার্নালের একটি রিপোর্ট বলেছে, কর্মীদের ভাল রাখার কথা। কারণ, কর্মীরা ভাল থাকলেই তবে তাঁদের কাজ ভাল হবে।

জাপানের মাইক্রোসফটের দপ্তরে এই তিনদিন ছুটি শুরু করার আগে এই প্রকল্প নিয়ে সংস্থার অনেকের মধ্যেই সংশয় ছিল। অনেকেই মনে করেছিলেন, এই হয়তো মুখ থুবড়ে পড়তে পারে সংস্থার উৎপাদন ব্যবস্থা। কিন্তু এক মাস পর হিসাব করে দেখা গেল, কর্মীদের সপ্তাহে তিনদিন করে ছুটি দেওয়া সত্ত্বেও সংস্থার উত্পাদন বেড়েছে ৩৯.৯ শতাংশ। শুধু তাই নয়, এই সময় কর্মীদের অতিরিক্ত ছুটি নেওয়াও কমে গিয়েছে প্রায় ২৫.৪ শতাংশ। দেখা গিয়েছে, এই একমাসে সংস্থার বিদ্যুতের খরচও কমেছে প্রায় ২৩ শতাংশ। আরও জানা গিয়েছে, এই একমাসে কর্মীদের তিন দিন ছুটি দেওয়া ছাড়াও সংক্ষিপ্ত করা হয়েছে একাধিক মিটিং।

[আরও পড়ুন: গভীর জঙ্গলে পাচারকারীদের গুলি, আমাজন পাহারা দিতে গিয়ে খুন আদিবাসী যুবক]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement