BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘আমাকে কেউ দেখতে পারে না’, আক্ষেপ মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: July 30, 2020 5:41 pm|    Updated: July 30, 2020 5:41 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় হোয়াইট হাউসের টাস্কফোর্সের সদস্য ও দেশের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ অ্যান্টনি ফাউচি বেশ জনপ্রিয়। দেশে করোনা সংক্রমণ রুখতে তাঁর মত ও চেষ্টাকে অধিকাংশ মার্কিন নাগরিকই সাধুবাদ জানাচ্ছেন। অন্যদিকে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে উঠছে অভিযোগের আঙুল। তিনি ও তাঁর প্রশাসন করোনা রোধে নাকি ব্যর্থ। আর তাতেই ব্যাপক চটেছেন ট্রাম্প। যদিও মজার ছলেই তাঁর কটাক্ষ, “কেউ বোধহয় আমাকে পছন্দ করে না, দেখতে পারে না। হয়তো আমার ব্যক্তিত্ব নিয়েই কোনও সমস্যা রয়েছে।”

[আরও পড়ুন: NATO গোষ্ঠীতে ফাটল! জার্মানি থেকে ১২ হাজার সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত ট্রাম্পের]

সংবাদ সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, মঙ্গলবার হোয়াইট হাউসে এক সাংবাদিক সম্মেলনে ট্রাম্প (Donald Trump) ম্যালেরিয়ার ওষুধ হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনের প্রতি নিজের সমর্থনের পক্ষে কথা বলার সময় ফাউচির প্রসঙ্গ আসে। ফাউচি ট্রাম্পের করোনাভাইরাস টাস্ক ফোর্সের অন্যতম সদস্য। সংক্রমণ থেকে নিজেদের রক্ষায় অনেক আমেরিকান তাঁর পরামর্শ অক্ষরে অক্ষরে মেনে চলছেন। অন্যদিকে, ট্রাম্প যেভাবে মহামারী সামলানোর চেষ্টা করেছেন, তা নিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েছেন। আগামী নভেম্বরে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগেভোটারদের সামনে নিজের ভাবমূর্তির উন্নতি ঘটাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে ট্রাম্পকে।

এই পরিস্থিতিতে হোয়াইট হাউসে ট্রাম্প বিস্ময় প্রকাশ করে বলেন, “এটা মজার ঘটনা যে, ফাউচিকে মানুষ পছন্দ করছেন, আমাকে করছেন না। ফাউচি আমাদের প্রশাসনেই কাজ করেন। ইচ্ছা করলে তাকে সরিয়ে অন্য কাউকে এ কাজের জন্য নেওয়া যেতে পারত। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই ফাউচির পরামর্শ গ্রহণ করা হয়েছে এবং সেই অনুযায়ী কাজ করা হয়েছে। যে লোকটি আমাদের সঙ্গে কাজ করেন তাঁকে পছন্দ করা হয়, অথচ আমাকে করা হয় না। এটা হতে পারে আমার ব্যক্তিত্বের কারণে।” ট্রাম্পের দাবি, তিনি এবং তাঁর প্রশাসনের অন্যদেরও করোনা সংক্রমণ রোধে ভূমিকার জন্য প্রশংসা পাওয়া উচিত। কিন্তু ফাউচি ও টাস্কফোর্সের অন্য সদস্য ডাঃ ডেবোরা ব্রিক্সকেই লোকে শুধু প্রশংসা করে। এটা ঠিক নয়।

[আরও পড়ুন: ইসলাম ধর্মকে ‘অপমান’, পাকিস্তানের আদালতে অভিযুক্তকে হত্যা করল ধর্মোন্মাদ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement