BREAKING NEWS

১০  আশ্বিন  ১৪২৯  শনিবার ১ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

নির্বাচনে জিততে ভারতীয় মসজিদ-দরগাতে ‘দোয়া’ চাইছেন পাক প্রার্থীরা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 15, 2018 3:55 pm|    Updated: July 15, 2018 3:55 pm

Pak assembly election, Many of the candidates are seeking “blessings” from Sufi shrines in India

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারত-পাক সীমান্ত যতই উত্তপ্ত হয়ে থাকুক না কেন বা দুই দেশ পরস্পরের বিষয়ে যতই বিষোদ্গার করুক না কেন, এখনও যে তাঁদের মধ্যে নিবিড় সম্পর্ক বর্তমান রয়েছে তা আরও একবার প্রমাণিত হল৷ জানা গিয়েছে, আসন্ন পাক সাধারণ নির্বাচনে জয় লাভের আশায় এখন থেকেই ভারতের বিভিন্ন মসজিদ, দরগা ও মাজারের দ্বারস্থ হতে শুরু করেছেন প্রার্থীরা৷ সীমান্তের কাঁটাতার টপকে নিজেরা সশরীরে ভারতে আসতে না পারলেও, সেখানকার ইমামদের মাধ্যমে তাঁরা চেয়ে নিচ্ছেন আল্লার দোয়া৷ বলছেন, একবার যেন মুখ তুলে চান খোদা৷

[প্রবল গরমে রানি এলিজাবেথকে দাঁড় করিয়ে রাখলেন ট্রাম্প, নিন্দায় মুখর ব্রিটেন]

সূত্রের খবর, বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই রাজস্থান ও পাঞ্জাবের মসজিদ, দরগা ও মাজারগুলিতে দোয়া চাইছেন পাক নির্বাচনে অংশগ্রহণকারীরা৷ যেমন, পাকিস্তানের পঞ্জাব প্রদেশে থেকে আসন্ন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন মুসলিম লিগ নওয়াজের প্রার্থী সৈয়দ ইমরান সোহা আলি৷ এর আগে দু’বার পাক সংসদের সদস্য হয়েছেন তিনি৷ আল্লার কাছে তাঁর প্রার্থনা, নির্বাচনে জয় লাভ করলে ভারতে এসে আজমিরের খাওয়াজা গরিব নাওয়াজের মাজারে দোয়া চাইবেন৷ একই ভাবে আল্লার কাছে প্রার্থনা চেয়েছেন প্রাক্তন পাক প্রধানমন্ত্রী তথা পাকিস্তান পিপলস পার্টির নেতা রাজা পারভেজ আশরাফ৷ যেহেতু নিজে সশরীরে ভারতে আসতে পারবেন না, তাই ইমাম মারফৎ আজমির দরগায় দোয়া চেয়েছেন তিনি৷ সৈয়দ বিলাল চিসতি নামের একজন ভারতীয় ইমাম জানিয়েছেন, কেবল দুটি উদাহরণ তুলে ধরা হলেও, তালিকাটা অনেকটাই বড়৷ তাঁর সংযোজন, পাক প্রার্থীদের মধ্যে কেউ বলছেন নির্বাচনে জয় পেলে নিজেরা সশরীরে আসবেন ভারতে, কেউবা পাশের দেশ বসেই কাঁটাতারের ওপাড় থেকেই দোয়া চেয়ে নিচ্ছেন৷

[ঢাকায় রাজনাথ-হাসিনা বৈঠক, পাশে থাকার বার্তা ভারতের]

আগামী ২৫ জুলাই অনুষ্ঠিত হচ্ছে পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচন৷ লড়াই হচ্ছে ৩৪২টি আসনে৷ যার মধ্যে ২৭২টি জেনারেল সিট ও ৭০ টি স্পেশ্যাল সিট, যা মহিলা ও সংখ্যালঘুদের জন্য বরাদ্দ রয়েছে৷ ইতিমধ্যে নির্বাচন ঘিরে চরম উত্তেজনা তৈরি হয়েছে পাকিস্তানে৷ বিভিন্ন জনমত সমীক্ষায় উঠে এসেছে, নানান ফলাফল৷ তবে ট্রেন্ট বলছে, কঠিন টক্কর হতে চলেছে তিনটি রাজনৈতিক দলের মধ্যে, পাকিস্তান মুসলিম লিগ, পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ ও পাকিস্তান পিপলস পার্টির মধ্যে৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে