১৫ চৈত্র  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ৩০ মার্চ ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

‘কোরান ও পরমাণু বোমা হাতে সাহায্য চান, ফেরাবে না’, পাকিস্তানকে বাঁচাতে আজব উপদেশ নেতার

Published by: Paramita Paul |    Posted: February 4, 2023 6:21 pm|    Updated: February 4, 2023 6:21 pm

Pakistan leader's bizarre solution for economic crisis | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পাকিস্তানের (Pakistan) অর্থ সংকট মেটানোর অনন্য উপায় বাতলে দিলেন সে দেশের এক নেতা। এক হাতে কোরান আর অন্যহাতে পারমাণবিক বোমার স্য়ুটকেস নিয়ে অন্য় দেশের কাছে অর্থ চাইতে যাক পাক নেতৃত্ব, তাহলেই আর কেউ খালি হাতে ফেরাবে না! পাক নেতার এহেন দাবি ঘিরে শুরু হয়েছে বিতর্ক। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল সেই ভিডিও।

মুদ্রাস্ফীতি, দ্রব্য মূল্যবৃদ্ধির জেরে ধুঁকছে পাকিস্তান। সমস্যা সামাল দিতে বিভিন্ন দেশের দ্বারস্থ হচ্ছে ইসলামাবাদের (Islamabad) শীর্ষ নেতৃত্ব। কেউ সাহায্যের হাত বাড়াচ্ছে তো কেউ আবার শর্তসাপেক্ষে সাহায্য করতে রাজি হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে দেশের অর্থনীতিকে বাঁচাতে অভিনব পরামর্শ দিলেন তেহরকি লব্বইকের নেতা। বাইরাল ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, জমায়েতের সামনে বক্তব্য় রাখছেন ওই নেতা। না সেখানে কোনও অর্থনৈতিক উপদেশ বা পরামর্শ দেননি। বরং ধর্ম ও অস্ত্রের জোরে বিশ্ব থেকে সাহায্য পাওয়ার দাওয়াই দিয়েছেন তিনি।

[আরও পড়ুন: নিয়োগ দুর্নীতির টাকায় ২৫ কিলোর ইলিশ যেত পার্থর বাড়িতে, ইডির জেরায় গোপন তথ্য ফাঁস কুন্তলের]

তাঁর কথায়, “দেশের আর্থিক সংকট কাটাতে বিভিন্ন দেশে দেশে গিয়ে হাত পাতছে দেশের নেতারা। এমনকী. সেনাপ্রধানকেও এই দলে শামিল করা হয়েছে। এরপর ওই নেতার প্রশ্ন, কেন দেশের সমস্যা মেটাতে ভিক্ষা চাইছেন আপনারা? পাকিস্তানি নেতৃত্বের উদ্দেশে তাঁর পরামর্শ, “বাঁ হাতে কোরান নিন আর ডান হাতে পারমাণবিক বোমা ভরতি স্যুটকেস। এভাবে সুইডেনে যান। বলুন, আমরা কোরানকে রক্ষা করতে এখানে এসেছি।” নেতার আশা,  এভাবে গোটা বিশ্ব সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেবে।

নানা দেশ ও সংস্থা থেকে বিপুল পরিমাণে ঋণ নিয়ে ইতিমধ্যেই প্রায় মৃত্যুর মুখে দাঁড়িয়ে পাক অর্থনীতি। মূল্যবৃদ্ধির সমস্যায় জেরবার আমজনতার বোঝা আরও বাড়িয়ে নয়া কর চাপাতে চলেছে শাহবাজ শরিফের সরকার। পাক সংবাদপত্র ডনের তরফে জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যেই দু’টি অর্ডিন্যান্সের খসড়া তৈরি করেছে শাহবাজ শরিফের প্রশাসন। মূলত ব্যবসার উপরেই ১০ হাজার কোটি টাকার কর বসানো হতে পারে। বিদ্যুৎ খরচের ছাড় বন্ধ করে দেওয়া হবে। সেই সঙ্গে গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম বাড়বে। এমন সংকটজনক পরিস্থিতিতে আজব পরামর্শ দিলেন ওই নেতা। 

[আরও পড়ুন: ‘রাজ্যের পাওনা আটকে রেখেছে কেন্দ্র, তাই সমস্যা হচ্ছে’, বকেয়া DA নিয়ে দাবি তৃণমূলের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে