২৩ আষাঢ়  ১৪২৭  বুধবার ৮ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

১৪ ফেব্রুয়ারি পালন করতে হবে সিস্টার’স ডে! আজব নির্দেশ বিশ্ববিদ্যালয়ের

Published by: Tanujit Das |    Posted: January 14, 2019 9:26 pm|    Updated: January 14, 2019 9:36 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘ভ্যালেন্টাইনস ডে’ নয় ওইদিন পালন করতে হবে ‘সিস্টারস ডে’৷ এমনই অবাক করার মতো নির্দেশিকা জারি করলেন পাক ফয়সলাবাদ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য জাফর ইকবাল রান্ডোয়া৷ তাঁর মতে, ইসলাম ও পাকিস্তানের ঐতিহ্য রক্ষার্থে এই কাজ করা উচিত বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের৷

[গাছের ফোকরে বইপত্তর, মার্কিন মুলুকে ভিন্ন গ্রন্থাগারের খোঁজ ]

১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্বজুড়ে পালিত হয় ‘প্রেম দিবস’ বা ‘ভ্যালেন্টাইনস ডে’৷ কিন্তু এতে আপত্তি জানিয়েছে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য৷ তিনি বলেন, ‘‘এ কাজ ইসলামের পরিপন্থী৷ প্রকাশ্যে প্রেম নিবেদন করা থেকে যুগলদের বিরত থাকা উচিত৷ তাই, ১৪ ফেব্রুয়ারি ভ্যালেন্টাইস ডে’র বদলে সিস্টার ডে পালন করবে ফয়সলাবাদ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়৷ ওইদিন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীদের পোশাক ও বিভিন্ন সামগ্রী উপহার দেওয়া হবে৷’’ তাঁর এই আদৌ কতটা মানবে বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা সেই বিষয়ে ধন্দে রয়েছেন তিনি৷ তবে এই পরিকল্পনা সফল হবে বড় বিপদের হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে বলে উপাচার্য জাফর ইকবাল রান্ডোয়ার দাবি৷

[বিপাকে ইমরান, ‘মিত্র তালিকা’ থেকে পাকিস্তানকে ছাঁটতে তৎপর ট্রাম্প প্রশাসন]

অনেক দিন ধরেই ভ্যালেন্টাইনস ডে পালন নিয়ে মতানৈক্য রয়েছে পাকিস্তানে৷ দেশের একাংশ এই দিন উদযাপনের বিরোধিতা করে৷ তেমনই একাংশ আবার এর পক্ষে৷ ২০১৭ ও ২০১৮-তে দেশজুড়ে ভ্যালেন্টাইনস ডে উদযাপন নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছিল ইসলামাবাদ হাই কোর্ট৷ এমনকি, সংবাদ মাধ্যমকেও কড়া নির্দেশ দিয়ে বলা হয়েছিল, ‘প্রেম দিবস’ সংক্রান্ত কোনও প্রচারমূলক অনুষ্ঠান করা যাবে না৷ ছাপা যাবে না এই দিনের কোনও খবরও৷ তৎকালীন পাক প্রেসিডেন্ট মামনুন হুসেনও দেশবাসীর কাছে অনুরোধ করেছিলেন ভ্যালেন্টাইনস ডে পালন না করার৷ তাঁরও যুক্তি ছিল, এই দিনটি ইসলামের পরিপন্থী৷ পশ্চিমী সংস্কৃতির সঙ্গে এর সম্পর্ক রয়েছে৷ কিন্তু ইসলামের সঙ্গে নেই৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement