BREAKING NEWS

৮ মাঘ  ১৪২৮  শনিবার ২২ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

স্বাধীনতার দাবিতে উত্তাল পাকিস্তানের সিন্ধুপ্রদেশ, মোদির ছবি নিয়ে মিছিলের ভিডিও ভাইরাল

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: January 18, 2021 12:56 pm|    Updated: January 18, 2021 6:00 pm

Placards of PM Modi, other world leaders seen at pro-freedom rally in Sindh of Pakistan । Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বেশ কিছুদিন ধরেই স্বাধীনতার দাবিতে বিক্ষোভ হচ্ছে পাকিস্তানের সিন্ধুপ্রদেশে। বিভিন্ন জায়গায় মিছিল ও অবস্থান বিক্ষোভ করে নিজেদের দাবির পক্ষে আন্দোলন করছেন হাজার হাজার মানুষ। রবিবার সেই রকম একটি মিছিলে দেখা গেল ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা-সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রাষ্টপ্রধানদের ছবি। প্রকাশ্যে আসা মিছিলের ভিডিওতে বিক্ষোভকারীদের বিভিন্ন স্লোগানের ফাঁকে পাকিস্তানের হাত থেকে নিষ্কৃতি পাইয়ে দেওয়ার জন্য মোদি-সহ বাকি রাষ্ট্র নেতাদের কাছে আবেদন জানাতেও শোনা গিয়েছে।

সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জানা গিয়েছে, রবিবার পাকিস্তানের সিন্ধুপ্রদেশের সান (Sann) এলাকায় স্বাধীনতার দাবিতে মিছিল বের করেছিলেন কয়েক হাজার মানুষ। তাঁদের দাবি, সিন্ধুপ্রদেশ হল সিন্ধু সভ্যতার ঘর। বৈদিক ধর্মের সূচনাও হয়েছিল এখান থেকে। কিন্তু, অবৈধভাবে এই জায়গা দখল করে রাজত্ব চালানোর পর বিট্রিশ সাম্রাজ্যবাদীরা ১৯৪৭ সালে তা পাকিস্তানের হাতে তুলে দেয়। তারপর থেকেই সিন্ধুপ্রদেশের প্রাচীন ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি নষ্ট করার চেষ্টা চালাচ্ছে ইসলামাবাদ। এর হাত থেকে নিষ্কৃতি পেতেই বেশ কিছুদিন ধরে স্বাধীনতার দাবিতে আন্দোলন করছেন সিন্ধুপ্রদেশের বেশিরভাগ বাসিন্দা। রবিবার সেই রকম একটি মিছিলেই দেখা গেল ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা-সহ বিভিন্ন রাষ্ট্রপ্রধানের ছবি। বিক্ষোভকারীরা তাঁদের কাছে পাকিস্তানের হাত থেকে নিষ্কৃতি পাইয়ে দেওয়ার জন্য আবেদন জানিয়েছেন।

[আরও পড়ুন: আমেরিকার বুকে হামলা চলতে সক্ষম ‘RS-18’, ভয়াবহ মিসাইল তৈরি করল রাশিয়া ]

এপ্রসঙ্গে ওই বিক্ষোভের অন্যতম নেতা ও জে সিন্ধ মুত্তাহিদা মাহাজের চেয়ারম্যান শাফি মুহম্মদ বুরফাত (Shafi Muhammad Burfat) বলেন, অতীত থেকে বর্তমান, সবসময়ই সিন্ধুপ্রদেশের ইতিহাস ও সংস্কৃতির উপর বর্বরোচিত আক্রমণ হয়েছে। তবে শত আঘাত সত্ত্বেও নিজেদের ইতিহাসকে স্মরণ রেখে নিজস্ব সংস্কৃতি গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছেন এখানকার মানুষ। আসলে অতীত থেকেই অন্যদের সংস্কৃতি, ধর্মীয় রীতিনীতিকে দূরে ঠেলে সরিয়ে দেওয়ার শিক্ষা পায়নি সিন্ধুর বাসিন্দারা। বরং বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মানব সভ্যতার উন্নয়নের জন্য এই সমস্ত বিষয়ে সমঝোতার মানসিকতা নিয়ে চলেছে। অন্যদের ভাল জিনিস থেকে নিজেদের উন্নত করেছে। কিন্তু, প্রথমে বিট্রিশ ও পরে পাকিস্তানের সরকার সিন্ধুপ্রদেশের সেই আদর্শকে ধ্বংস করার ক্রমাগত চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।’

[আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্ত বাদুড় কামড়েছিল চিনা বিজ্ঞানীকে, তথ্য সামনে আসায় ফের শোরগোল]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে