১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ৬ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

চিনা দাদাগিরি রুখলেন মোদি, মালদ্বীপের সঙ্গে নয়া সম্পর্কের সূচনা ভারতের

Published by: Tanujit Das |    Posted: November 18, 2018 11:27 am|    Updated: November 18, 2018 11:27 am

PM modi in Maldives

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মালদ্বীপের নতুন প্রেসিডেন্ট হিসাবে শপথ নিলেন ইব্রাহিম মহম্মদ সলিহ ওরফে ইবু। সলিহর শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে অন্যতম প্রধান অতিথি হিসাবে হাজির ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ভারত-মালদ্বীপ কূটনৈতিক সম্পর্কে নয়া মাত্রা যোগ করেছে প্রধানমন্ত্রীর এই সফর৷ কারণ, এতদিন মালদ্বীপের ক্ষমতার শীর্ষে ছিলেন চিন ঘনিষ্ঠ স্বৈরাচারী শাসক আবদুল্লা ইয়ামিন। যার শাসনকালে ভারতের সঙ্গে দূরত্ব তৈরি হয়েছিল সেদেশের৷ কিন্তু, ভারত বন্ধু সলিহর ক্ষমতা দখল এবং প্রধানমন্ত্রী মোদির সফর, দু’দেশের সুসম্পর্ক স্থাপনে নয়া দরজা খুলে দিল বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল৷

[সাংবাদিক হেনস্তার ঘটনায় হোয়াইট হাউসের বিরুদ্ধে জয় সিএনএন-এর]

গত, ২৩ সেপ্টেম্বর মালদ্বীপে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়৷ ওই নির্বাচনে জয়লাভ করে মালদ্বীপ ডেমোক্র‌্যাটিক দলের (এমডিপি) প্রার্থী ৫৪ বছরের সলিহ। প্রথম থেকেই মালদ্বীপের এই রাজনৈতিক পালাবদলের প্রত্যাশায় ছিল ভারত৷ কারণ, সেদেশের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট আবদুল্লা ইয়ামিন ছিলেন চিনের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ। ইয়ামিনের জমানায় চিনের সঙ্গে সখ্যতা দৃঢ় হয়েছিল মালদ্বীপের। ইয়ামিনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার সুযোগকে কাজে লাগিয়ে এই দ্বীপরাষ্ট্রে বিশেষ প্রভাব বিস্তার করেছিল বেজিং। সম্প্রতি শ্রীলঙ্কার সঙ্গেও চিনের সম্পর্ক দৃঢ় হয়েছে। এভাবে দক্ষিণের দুই দ্বীপরাষ্ট্রের উপর নিজেদের প্রভাব বাড়িয়ে ভারতের ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলছিল বেজিং। সলিহর শপথে নিশ্চিতভাবেই সেই পরিস্থিতির বদল ঘটল বলে ওয়াকিবহাল মহলের অনুমান। এদিন তার ইঙ্গিতও মিলেছে। সলিহ ইতিমধ্যেই ঘোষণা করেছেন, তাঁর সরকার
ভারতকেই অগ্রাধিকার দেবে। পাশাপাশি চিনা বিনিয়োগ নিয়ে পর্যালোচনা করা হবে বলে জানান হয়েছে।

[মানবাধিকার কর্মীদের মুক্তি চাই, পাক প্রশাসনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে বালোচরা]

প্রধানমন্ত্রী হিসেবে এটাই ছিল নরেন্দ্র মোদির প্রথম মালদ্বীপ সফর। এর আগে ২০১১-তে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং মালদ্বীপে গিয়েছিলেন। এদিন মোদি মালদ্বীপের রাজধানী মালেতে পৌঁছলে তাঁকে অভ্যর্থনা জানান সেদেশের পার্লামেন্টের স্পিকার আবদুল্লা মাসে মহম্মদ৷ সলিহর শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে মোদি মালদ্বীপের দুই প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট মহম্মদ নাশীদ ও মামুন আবদুল গায়ুমের ঠিক পাশেই বসেছিলেন। শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট চন্দ্রিকা কুমারতুঙ্গাও সলিহর শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। এদিন মোদি মালদ্বীপ ও অন্যান্য রাষ্ট্রের কয়েকজন নেতার সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে