৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

প্রধানমন্ত্রী পদের দাবিদার পর্নস্টার? ধন্দে ব্রিটেন!

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 12, 2016 2:53 pm|    Updated: July 12, 2016 2:53 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যৌন ব্যবসার সঙ্গে কোনও না কোনও ভাবে জড়িত থাকেন যাঁরা, তাঁরা পৃথিবীর সব দেশেই অল্পবিস্তর ট্যাবুর শিকার! তাই যখন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী পদের দাবিদারের সঙ্গে জুড়ে গেল পর্নস্টারের তকমা, চোখ কপালে উঠল অনেকেরই! পাশাপাশি টুইটারে শুরু হল হুলুস্থুলু!
আদতে কিন্তু ব্যাপারটার পুরোটাই ভ্রান্তিবিলাস! কনজারভেটিভ পার্টির লিডার হিসেবে মনোনয়ন পেয়ে যিনি ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী পদ পাওয়ার দিকে এক ধাপ এগিয়ে আছেন, সমস্যা করেছে সেই থেরেসা মে-র নাম!
খবরটা পাওয়ার পর যখন থেরেসা মে-র নাম দিয়ে গুগল সার্চ শুরু হয়েছে, ঠিক সেই সময় থেকেই দেখা দিয়েছে প্রমাদ। রাজনৈতিক নেত্রীর ইংরেজিতে নামের বানান Theresa May। কিন্তু, বেশির ভাগ মানুষই সার্চ করেছেন Teresa May বানানে!
এখন এই Teresa May ব্রিটেনের এক নামজাদা মডেল। মডেলিংয়ের পাশাপাশি কিছু হালকা চালের পর্নোগ্রাফি ছবিতে অভিনয়ের অভিজ্ঞতাও রয়েছে তাঁর ঝুলিতে! ফলে যাঁরা রাজনৈতিক নেত্রীকে চেনেন না, তাঁরা ভাবতে থাকেন অভিনেত্রীই হতে পারেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী! এবং, তাঁর পরিচয় জানতে গিয়ে যখন দেখছেন পর্নস্টারের তকমা, তখন বিস্ময়ের সীমা-পরিসীমা থাকছে না।


এখন এই ব্যাপারটা কনজারভেটিভ পার্টির নেত্রী জানেন কি না, তা সঠিক ভাবে বলা যাচ্ছে না। কেন না, তিনি এই প্রসঙ্গে কোনও রকম মন্তব্য করেননি! অন্য দিকে, পর্নস্টার কিন্তু বেশ অবাক হয়েছেন গোটা ঘটনায়। পাশাপাশি, একটু-আধটু বিরক্তও হয়েছেন! টুইট করে তিনি জানিয়েছেনও সেই কথা।
”কিছুতেই বুঝতে পারছি না, লোকে কী করে আমায় ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে গুলিয়ে ফেলে! যত ভাবছি, অবাক হচ্ছি! এতটা অজ্ঞানতা মানুষের থাকে কী করে, কে জানে”, টুইটে লিখেছেন পর্নস্টার!

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement