BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

তাইওয়ানে ভয়াবহ ভূমিকম্পে হেলে পড়ল হোটেল, মৃত ৪

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: February 7, 2018 1:34 pm|    Updated: September 17, 2019 12:21 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটেল ডেস্ক: ভয়াবহ ভূমিকম্পে ৪ জনের মৃত্যু হল তাইওয়ানে। আহতের সংখ্যা ২২৫। রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ৬.৪। মঙ্গলবার রাতে ভূকম্পন অনুভূত হয় তাইওয়ানের পূর্ব উপকূলীয় এলাকায়। কম্পনের আঁচ পেয়েই ঘর ছেড়ে রাস্তায় নেমে আসেন বাসিন্দারা। ততক্ষণে বেশকিছু বহুতল আবাসন, হোটেল ভেঙে পড়েছে। এই ভূকম্পনে ঠিক পরেই ৫.৪ মাত্রার আরও একটি কম্পন অনুভূত হয় সংশ্লিষ্ট এলাকায়। এর জেরেই তাইওয়ানের হুয়ালিন শহরের একটি হোটেল বিপজ্জনকভাবে হেলে গিয়েছে। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পোঁছেছে পুলিশ।

[বড় সাফল্য বিজ্ঞানীদের, মঙ্গলে পাড়ি বিশ্বের সবথেকে শক্তিশালী রকেটের]

FIRE-WEB

বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর একটি দল উদ্ধারকার্য শুরু করেছে। গোটা এলাকা থেকে ২২৫ জনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। প্রায় দেড়শোর মতো লোক এখনও আটকে পড়ে আছে বলে খবর। বিপর্যয়ের পরেই উপদ্রুত এলাকার বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। ফের কম্পনের আশঙ্কায় প্রায় ১ লক্ষ বাসিন্দা এখন তাইওয়ানের রাস্তায় অবস্থান করছেন। ৪০ হাজার মানুষের কাছে পানীয়জল নেই। বিদ্যুৎহীন অবস্থায় রয়েছেন ৬০০ মানুষ। এদিকে দ্বিতীয়বার ভূকম্পন অনুভূত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই হুয়ালিন শহরের মার্শাল হোটেলটি বিপজ্জনকভাবে হেলে যায়। মধ্যরাতে ঘটনা ঘটায় অতিথিরা সব হোটেলেই ছিলেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে উদ্ধারকারীদল। বিপর্যয়মোকাবিলা বাহিনীর সঙ্গে একযোগে উদ্ধারকাজ শুরু হয়েছে। হোটেলটি থেকে অনেককেই বের করে আনা সম্ভব হয়েছে। এখনও জোর কদমে চলছে উদ্ধারকার্য। ভূকম্পনের পর থেকে ১৫০জনের কোনও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। ধ্বংসস্তূপের মধ্যে প্রচুর মানুষ আটকে পড়ে আছে বলে মনে করা হচ্ছে।

বুধবার ভূকম্প বিধ্বস্ত এলাকা পরিদর্শনে যান তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট সাই ইং ওয়েন। এরপরেই উদ্ধারকার্যে গতি আনতে বিপর্যয় মোকাবিল দপ্তর ও সংযুক্ত মন্ত্রীদের নির্দেশিকা পাঠান তিনি। সেই সঙ্গে পর্যাপ্ত ত্রাণেরও বন্দোবস্তের নির্দেশ দিয়েছেন। চিনের অন্তর্ভূক্ত হয়েও একটি স্বশাসিত দ্বীপরাষ্ট্র হল তাইওয়ান। দীপরাষ্ট্রের একেবারে কেন্দ্রস্থলে একটি ৬.১ মাত্রার ভূকম্পন অনুভূত হয়েছিল রবিবার। তারপর আফটরা শকে কেঁপে উঠছে তাইওয়ান। বিপর্যয়ের সংখ্যাও লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। ২০১৬ সালে তাইওয়ানের দক্ষিণাংশে ভয়াবহ ভূমিকম্পে একশোরও বেশি প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছিল। এর আগে এই দ্বীপরাষ্ট্রে বড়মাত্রার ভূকম্পন হয়েছিল ১৯৯৯ সালে। রিখটার স্কেলে ৭.৫ মাত্রার সেই কম্পনে ২ হাজারেরও বেশি মানুষের প্রাণ যায়।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement