১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৬ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘রামায়ণ-মহাভারত শুনে বড় হয়েছি’, বইয়ে ভারতের প্রতি আগ্রহের কথা লিখলেন ওবামা

Published by: Paramita Paul |    Posted: November 17, 2020 5:03 pm|    Updated: November 17, 2020 6:56 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ২০১০ সালের আগে ভারতে আসা হয়নি। তবে ছেলেবেলা থেকেই এ দেশ সম্পর্কে  গভীর আগ্রহ জন্মেছিল প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার (Barack Obama)। আর তার জন্য অনেকটাই দায়ী এ দেশের মহাকাব্য রামায়ণ-মহাভারত। তাঁর নতুন বই ‘এ প্রমিসড ল্যান্ড’-এর অনেকটা জুড়েই সে কথা ব্যক্ত করেছেন স্মৃতিমেদুর বারাক ওবামা।

আমেরিকার প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি লিখেছেন, “ভারত সম্পর্কে ছোট থেকেই আগ্রহ ছিল আমার। আসলে ছেলেবেলাটা ইন্দোনেশিয়ায় কেটেছে। সেখানে রামায়ন-মহাভারতের (Ramayana-Mahabharat) গল্প শুনতাম। প্রাচ্যের ধর্মীয় বিষয়ে আমার আগ্রহও ছিল। এগুলোই আমার মনে ভারতকে একটা বিশেষ স্থান দিয়েছিল।” ওবামা আরও জানিয়েছেন, কলেজ জীবনে তাঁর অনেক ভারতীয় ও পাকিস্তানি বন্ধু ছিলেন। তাঁরা তাঁকে (মার্কিন রাষ্ট্রপতি) ডাল-কীমা রান্না করতে শিখিয়েছিল। এমনকী, ওবামা কলেজ জীবনে বলিউড সিনেমারও ভক্ত ছিলেন বলেও বইতে জানিয়েছেন।

[আরও পড়ুন : ইরানের সঙ্গে আণবিক চুক্তিতে ফিরতে পারেন বিডেন, তীব্র আপত্তি ইজরায়েলের]

আমেরিকার প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ রাষ্ট্রপতির মনে ভারতের জন্য এক অনন্য স্থান রয়েছে। সেই মর্যাদা তৈরিতে বড় ভূমিকা পালন করেছেন মহাত্মা গান্ধীও। বইতে ওবামা লিখেছেন, “আব্রাহম লিংকন, মার্টিন লুথার, নেলসন ম্যান্ডেলার পাশাপাশি আমার ভাবনাচিন্তাকে গভীরভাবে প্রভাবিত করেছিলেন মহাত্মা গান্ধী। তাঁর অহিংস আন্দোলনের ধারা ব্রিটিশরাজকে টালমাটাল করে দিয়েছিল। তিনি শুধুমাত্র উপমহাদেশকে সাম্রাজ্যবাদ মুক্তই করেননি, গোটা বিশ্বকে এক নতুন পথ দেখিয়েছেন।”

বইতে ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং-য়েরও ভূয়সী প্রশংসা করেছেন ওবামা। সোনিয়া গান্ধী কেন তাঁকে প্রধানমন্ত্রী পদে বসিয়েছিলেন, সে কথা রয়েছে নতুন বইতে। ওবামা লিখেছেন, “অনেক ভেবেচিন্তে মনমোহন সিংকে প্রধানমন্ত্রী করেছিলেন সোনিয়া গান্ধী। তিনি জানতেন, প্রৌঢ় শিখ মনমোহন সিংয়ের জাতীয় রাজনীতিতে কোনও সমর্থক নেই। ফলে তিনি রাহুল গান্ধীর পথের কাঁটা হবেন না।”

ওবামা ভারতের প্রাকৃতিক ও জনজাতির বৈচিত্র্যও খুব সুন্দরভাবে তুলে ধরেছেন তাঁর বইতে। তিনি লিখেছেন, “হতে পারে তার (ভারতের) বিশাল আয়তনের জন্য, বিশ্বের ছ’ভাগের একভাগ জনসংখ্যার জন্য, প্রায় ২,০০০ স্বতন্ত্র জনগোষ্ঠী এবং (ভারতে) ৭০০-রও বেশি ভাষায় কথা বলা হয়, সেজন্য হয়তো আমার কল্পনার জগতে এক বিশেষ স্থান করে নিয়েছিল এই দেশ।”

[আরও পড়ুন : ক্ষমতা ছাড়ার আগে ইরানে হামলার ছক ট্রাম্পের! বিডেনের পথে কাঁটা ছড়াতেই কি পরিকল্পনা?]

২০০৮ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচার থেকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে নিজের প্রথম দফার শেষপর্যন্ত বিভিন্ন ঘটনার কথা এই বইতে তুলে ধরেছেন ওবামা। তাতে রয়েছে পাকিস্তানের অ্যাবটোবাদে আল কায়দা প্রধান ওসামা বিন লাদেনকে খুঁজে বের করার ঘটনা। দু’খণ্ডের সেই বইয়ের প্রথম খণ্ডটি বিশ্বজুড়ে মঙ্গলবার বাজারে এসেছে। সেই স্মৃতিচারণায় একটা বড় অংশ জুড়ে রয়েছে ভারত ও এ দেশের রাজনীতি, রাজনীতিবিদদের কথা। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement