BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

জঙ্গি খাতায় নাম উঠল সুজিত ওরফে সাইফুল্লাহর

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 24, 2016 8:46 pm|    Updated: July 24, 2016 8:46 pm

An Images

সুকুমার সরকার, ঢাকা:  ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার সাইফুল্লাহ ওজাকির নিখোঁজ হওয়া এবং জঙ্গি খাতায় নাম নিয়ে ধোঁয়াশার সৃষ্টি হয়েছে। গুলশান ও শোলাকিয়ায় জঙ্গি হামলার পর, ফিরে আসার আহ্বান জনিয়ে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী যে ১০ যুবকের ছবি-সহ সংবাদমাধ্যমে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে, তাদের মধ্যেই একজন সাইফুল্লাহ ওজাকি। ওজাকি নাগরিকত্ব নিয়ে জাপানে বসবাসকারী একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপনা করে। অবশ্য পুলিশের তালিকায় সে নিখোঁজ। তবে তার পরিবারই জানে না যে সে নিখোঁজ।

নবীনগর উপজেলার কড়ইবাড়ি গ্রামের জনার্দন দেবনাথের ছেলে সুজিত কুমার দেবনাথই সাইফুল্লাহ ওজাকি। ২০০১ সালে জাপান সরকারের স্কলারশিপ নিয়ে জাপান চলে যায় সাইফুল্লাহ। জাপানে বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্র্যাজুয়েটদের দেওয়া হয় ওজাকি উপাধি। সুজিত বিয়েও করেন এক জাপানি মহিলাকে। পরে সস্ত্রীক ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে মোহম্মদ সাইফুল্লাহ ওজাকি নাম নেন।

ঢাকার উত্তর পশ্চিম থানার সন্ত্রাস বিরোধী আইনে দায়ের করা একটি মামলার আসামি সাইফুল্লাহ ওজাকির বাড়িতে কয়েক মাস আগে নবীনগর থানার পুলিশ তদন্তে যায়। এরপরই গুলশান ও শোলাকিয়া হামলার পর নিখোঁজ হিসেবে তার নাম প্রকাশিত হয়। সাইফুল্লাহ ওজাকির বাবা জনার্দন দেবনাথ পেশায় একজন কাপড় ব্যবসায়ী। কানাডা ভিত্তিক ‘বেঙ্গল টাইমস’ নামে একটি অনলাইন পত্রিকায় ২৩ জুলাই সংবাদ প্রকাশ করে। যার শিরোনাম ‘ধর্মান্তরিত হয়ে সপরিবারে ‘আইএসে’ সাইফুল্লাহ ওজাকি’। অনলাইন ‘দ্য জাপান টাইমস’ এর নাম দিয়ে প্রকাশিত ওই প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয় ‘স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে ইউরোপ হয়ে সিরিয়া পাড়ি দিয়েছেন সাইফুল্লাহ ওজাকি। মোহাম্মদ সাইফুল্লাহ ওজাকি কিয়োটো প্রিফেকচারে রিটসুমেইকান ইউনিভার্সিটিতে অধ্যাপনা করতেন। তার স্ত্রী একজন জাপানি। গত বছর তিনি সপরিবারে ইউরোপের উদ্দেশ্যে জাপান ত্যাগ করার পর থেকেই নিখোঁজ রয়েছেন। সাইফুল্লাহ ওজাকি ২০১৫ সালের ১৫ মে তুরস্কের ইস্তানবুল হয়ে সিরিয়া যাওয়ার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। তখন জাপান ফিরে আসার পর পুলিশ তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement