BREAKING NEWS

০৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  রবিবার ২২ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

এবার পাক শরণার্থীদেরও আমেরিকায় প্রবেশ নিষিদ্ধ করছেন ট্রাম্প!

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 30, 2017 3:16 am|    Updated: January 30, 2017 3:26 am

There's a possibility in future of including Pakistan in list of countries from where immigration has been banned: White House official.

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: খুব তাড়াতাড়ি পাকিস্তান থেকেও শরণার্থীদের মার্কিন মুলুকে প্রবেশের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করতে চলেছেন নয়া মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প৷  হোয়াইট হাউসের একটি সূত্রকে উদ্ধৃত করে এমনটাই জানিয়েছে সংবাদ সংস্থা পিটিআই৷  আপাতত সাতটি দেশ থেকে মুসলিম উদ্বাস্তু ও শরণার্থীদের আমেরিকায় প্রবেশের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প৷

হোয়াইট হাউসের চিফ অফ স্টাফ রেইন্স প্রিবাস জানিয়েছেন, যে সাতটি দেশ থেকে অভিবাসীদের মার্কিন মুলুকে প্রবেশের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে সেই সব দেশে সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ চূড়ান্ত ভয়াবহ রূপ নিয়েছে৷  মার্কিন কংগ্রেস ও ওবামা প্রশাসন আগেই ওই সাতটি দেশকে সন্ত্রাসের আঁতুড়ঘর বলে চিহ্নিত করেছিল৷  ভবিষ্যতে পাকিস্তানকেও ওই কালো তালিকায় ফেলতে পারে আমেরিকা৷  কারণ, সেখানেও চরমপন্থী ইসলামিক সন্ত্রাসের দাপাদাপি কমার কোনও লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না৷

প্রিবাস আরও বলেছেন, “সন্ত্রাসবাদীদের নিয়ে সমস্যায় ভুগছে পাকিস্তানও৷  তাদের নিয়েও এবার ভাবনাচিন্তা করার সময় চলে এসেছে৷ ” আপাতত পাকিস্তান থেকে আমেরিকায় আসা পাক নাগরিকদের উপর কড়া নজর রাখছে ট্রাম্প প্রশাসন৷  নজর রাখা হচ্ছে আফগানিস্তানের উপরও৷  নজিরবিহীনভাবে এই প্রথমবার পাক শরণার্থীদের মার্কিন মুলুকে প্রবেশাধিকার কেড়ে নেওয়া হতে পারে বলে প্রকাশ্যে মুখ খুলল আমেরিকা৷

অন্যদিকে, ট্রাম্পের নির্দেশ নিয়ে গোটা আমেরিকা জুড়ে তীব্র বিক্ষোভ চলছে৷ বিভিন্ন বিমানবন্দরে প্রতিবাদে শামিল হয়েছেন শরণার্থীরা৷ মার্কিন নাগরিকদের দেশে ঢোকার ক্ষেত্রে পাল্টা নিষেধাজ্ঞা জারির প্রস্তুতি নিচ্ছে ইরানও৷ চাপের মুখেও আত্মপক্ষ সমর্থন করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, নতুন ব্যবস্থায় খুব ভাল কাজ হচ্ছে৷ আর এই নির্দেশ মোটেও মুসলিমদের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা নয়৷

শুক্রবার ট্রাম্পের জারি করা প্রশাসনিক নির্দেশে আমেরিকায় শরণার্থী ঢোকা চারমাসের জন্য নিষিদ্ধ হয়ে গিয়েছে৷ পাশাপাশি, সিরিয়া, ইরাক, ইরান, লিবিয়া, সুদান, সোমালিয়া ও ইয়েমেনের কোনও নাগরিক তিনমাসের জন্য আমেরিকায় ঢুকতে পারবেন না৷ একইসঙ্গে ট্রাম্প জানিয়ে দেন, ভবিষ্যতে শরণার্থীদের ক্ষেত্রে খ্রিস্টান ও অন্য সংখ্যালঘুদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে৷ এর পরই বৈধ ভিসা ও পারমিট থাকা সত্ত্বেও জন এফ কেনেডি-সহ অন্য বিমানবন্দরে প্রায় দুশো শরণার্থীকে আটক করা হয়৷ ট্রাম্পের নির্দেশের পরই শনিবার মামলা করে আমেরিকান সিভিল লিবার্টিজ ইউনিয়ন নামে একটি সংগঠন৷ নিউ ইয়র্ক প্রাদেশিক আদালতের বিচারক অ্যান ডনেলি স্থগিতাদেশ দিয়ে জানান, ওই সাতটি দেশের নাগরিক হলেও বৈধ ভিসা ও পারমিট থাকলে তাঁদের আমেরিকায় ঢুকতে দিতে হবে৷ স্বদেশে ফেরত পাঠানো হলে ওই শরণার্থীদের প্রভূত ও অপূরণীয় ক্ষতি হবে৷

(মার্কিন সেনাকে ৩০ দিনের মধ্যে আইএস নিধনের নির্দেশ ট্রাম্পের)

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে