BREAKING NEWS

১২ ফাল্গুন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বিডেনের সাফল্যের জন্য প্রার্থনা করার আহ্বান, হোয়াইট হাউস ছাড়ার আগে ভোলবদল ট্রাম্পের!

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: January 20, 2021 9:29 am|    Updated: January 20, 2021 5:15 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ক্যাপিটল হিলে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকদের তাণ্ডবের পরে জো বিডেনের শপথগ্রহণকে কেন্দ্র করে তটস্থ গোটা আমেরিকা। একে কোভিডের তাণ্ডব। তার মধ্যে আজ ট্রাম্প ও ট্রাম্পভক্তরা কখন কী করে বসবেন, তার ঠিক নেই। সব মিলিয়ে একটা থমথমে পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছে। ঠিক সেই সময়ে জানা গেল, নিজের ফেয়ারওয়েল ভিডিওবার্তায় জো বিডেনের সাফল্যের জন্য আমেরিকানদের প্রার্থনা করতে আহ্বান জানিয়েছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প (Donald Trump)।

গত ৩ নভেম্বর মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশ হওয়ার পর থেকে লাগাতার ডেমোক্র্যাট শিবিরকে আক্রমণ করে গিয়েছেন রিপাবলিকান ট্রাম্প। জালিয়াতি করে তাঁকে হারানো হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন। মামলা করেছেন। আর তাতে কোনও লাভ না হওয়ায় অশান্তি সৃষ্টির জন্য নিজের সমর্থকদের উসকানিও দিয়েছেন বলে বিরোধীদের দাবি। তবে ক্যাপিটল হিলের ঘটনার পর দ্বিতীয়বার ইমপিচমেন্টের মুখোমুখি হওয়ার কিছুটা থমকে গিয়েছিলেন তিনি। এতটাই নাকি চাপে ছিলেন যে গত এক সপ্তাহ ধরে জনসমক্ষেও দেখা যায়নি বুধবার প্রাক্তন হতে চলা ডোনাল্ড ট্রাম্পকে। তাই ৪৬তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বিডেনের শপথগ্রহণের দিন তিনি কী করবেন তা নিয়ে জল্পনা চলছিল। মঙ্গলবার তার অবসান ঘটিয়ে আমেরিকার ইতিহাসের সবচেয়ে বিতর্কিত প্রেসিডেন্ট নিজের অবস্থান বদল করেছেন। আরও জানা গিয়েছে, খুব তাড়াতাড়ি ভোলবদল করে ব্যক্তিগত ভাবে জো বিডেনকে অভিনন্দন জানাতে পারেন ট্রাম্প অথবা ওভাল অফিসে তাঁকে সৌজন্যমূলক সাক্ষাৎ ও চা-এর নিমন্ত্রণ করতে পারেন।

[আরও পড়ুন: ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা উঠছে না এখনই, ট্রাম্পের দাবি উড়িয়ে জানাল টিম বিডেন]

এই সমস্ত বিষয় নিয়ে জল্পনার মাঝেই আজ ক্যাপিটল হিলে শপথগ্রহণ (swearing-in) করবেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্ট জো বিডেন (Joe Biden) এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস। আর তাঁদের শপথগ্রহণ সময় অভূতপূর্ব বেশ কিছু জিনিস দেখা যাবে যা আগে কখনও হয়নি। প্রথমেই লক্ষণীয়, ক্যাপিটল হিলের ন্যাশনাল মলে দর্শকের অনুপস্থিতি। সাধারণত শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান যাতে সাধারণ দর্শক দেখতে পারেন, তার জন্য প্রায় দু’লক্ষ টিকিট বিক্রি হয়। এবার কোভিডের ধাক্কায় তা হচ্ছে না। জায়গাটা ভরানো হয়েছে লক্ষ—লক্ষ আমেরিকান পতাকা দিয়ে।

দ্বিতীয়ত, বিডেন এবং হ্যারিসের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে পূর্ণ শক্তি মোতায়েন করেছে ন্যাশনাল গার্ড। অন্যান্য বার ন্যাশনাল গার্ডের হাজার দশেক নিরাপত্তারক্ষী প্রেসিডেন্টের শপথগ্রহণে হাজির থাকেন। এবার গোটা ন্যাশনাল গার্ডকেই হাজির থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যে সংখ্যাটা ২৫ হাজার!

[আরও পড়ুন: বকেয়া মেটানোর দাবি, সৌদি আরবের পর এবার পাকিস্তানকে চাপ সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর]

শপথগ্রহণের পরে এমনিতে হোয়াইট হাউস চত্বরে প্যারেড করেন নতুন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। হাজার-হাজার আমেরিকান তাঁকে দেখার জন্য রাস্তায় ভিড় করেন। এবার তাও হচ্ছে না। বিডেনের প্যারেডে দর্শক নিষিদ্ধ। তা দেখা যাবে একমাত্র টিভির পর্দায়। আর সবচেয়ে বড় ব্যতিক্রম, অনুষ্ঠানে থাকবেন না বিদায়ী প্রেসিডেন্ট। যদিও ট্রাম্পের এই সিদ্ধান্ত যে শাপে বর হয়েছে, বিডেন-সহ অনেক আমেরিকানই তা মনে করেন।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement