৮ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০১৯ 

Menu Logo নির্বাচন ‘১৯ দেশের রায় LIVE রাজ্যের ফলাফল LIVE বিধানসভা নির্বাচনের রায় মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
নির্বাচন ‘১৯

৮ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সুকুমার সরকার, ঢাকা: একাধিক সম্পর্কে জড়িত প্রেমিক৷ মেনে নিতে পারেননি তরুণী৷ প্রেমিকের উপর অভিমানে আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন৷ কিন্তু কিছু পরেই অভিমান ক্ষোভে পরিণত হয়৷ রাগের বশে মশলা বাটার শিল দিয়ে প্রেমিকের মাথায় আঘাত করে প্রেমিককে খুন করে সে৷ এই ঘটনায় ওই তরুণীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ৷ দেহ লোপাটের অভিযোগে পুলিশের জালে তার বাবাও৷

[ আরও পড়ুন: খাবার টেবিলেই মৃত্যু হাসিনার ৮ বছরের নাতির, শ্রীলঙ্কার পর বাংলাদেশেও কড়া নিরাপত্তা]

সোশ্যাল সাইটে হবিগঞ্জ জেলার মুড়াকরি গ্রামের বাসিন্দা উজ্জ্বল মিঞার সঙ্গে ফারজানা আখতারের বন্ধুত্ব হয়৷ দিন যত গড়াতে থাকে, ততই একে অপরের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হতে থাকে দু’জনে৷ শুরু হয় বাড়িতে আসাযাওয়া৷ ফেব্রুয়ারিতে ফারজানার বাবা-মা ঢাকায় গিয়েছিলেন৷ এ সুযোগে ২০ ফেব্রুয়ারি উজ্জ্বল তাঁর বাড়িতে যায়৷ উদ্দাম যৌনতায় মেতে ওঠে দু’জনে৷ ঠিক সেই সময় উজ্জ্বলের মোবাইল বেজে ওঠে৷ ফোন কেটে দেন উজ্জ্বল৷ তা সত্ত্বেও বারবার ফোন বাজতে থাকে৷ এরপর একটি মেসেজও আসে৷ ফোনের ওপারে কে রয়েছেন? তা দেখতে গিয়েই মন ভেঙে যায় ফারজানার৷ সে দেখে উজ্জ্বলের এক প্রেমিকাই তাঁকে মেসেজ এবং ফোন করেছে৷ প্রেমিকের উপর অভিমানে প্রথমে আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নেয় ফারজানা৷ পর মুহূর্তেই চিন্তাভাবনা বদলায় সে৷ রাগের বশে প্রেমিকের মাথায় মশলা বাটার শিল দিয়ে আঘাত করে তরুণী৷ মৃত্যু নিশ্চিত করতে হাত-পায়ের শিরা কেটে দেওয়া হয়৷ এরপর একটি বস্তায় উজ্জ্বলের দেহ ভরে মাটিতে পুঁতে দেয় ফারজানা৷ পরেরদিন বাবা-মাকে গোটা ঘটনাটি জানায় ওই তরুণী৷ দেহ লুকিয়ে রাখতে সাহায্য করেন ফারজানার বাবাও৷ 

[ আরও পড়ুন: যৌন হয়রানি ঠেকাতে উদ্যোগ, সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিশেষ কমিটি গঠন বাংলাদেশ সরকারের]

এদিকে, ছেলে বাড়ি ফিরছেনা দেখে বাধ্য হয়েই ২৬ ফেব্রুয়ারি থানার দ্বারস্থ হয় উজ্জ্বলের বাবা৷ পুলিশ সুপারের তত্ত্বাবধানে তদন্ত শুরু হয়৷ সেই অনুযায়ী ফারজানা ও তার বাবাকে জেরা করেন তদন্তকারীরা৷ জিজ্ঞাসাবাদে ভেঙে পড়ে ফারজানা৷ খুনের কথা স্বীকার করে নেয় তরুণী ও তার বাবা৷ এরপরই পুলিশ দু’জনকে গ্রেপ্তার করে৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং