৪ শ্রাবণ  ১৪২৬  শনিবার ২০ জুলাই ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

৪ শ্রাবণ  ১৪২৬  শনিবার ২০ জুলাই ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সুকুমার সরকার, ঢাকা: শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোয় ধারাবাহিক বিস্ফোরণকাণ্ডে প্রাণ হারিয়েছে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এক নাবালক নাতি৷ জখম হয়েছেন তাঁর জামাতাও৷ কলম্বোয় রবিবারের বিস্ফোরণে নিহত ৮ বছরের ওই নাবালকের নাম জায়ান চৌধুরী৷ তার বাবা মশিউল হক চৌধুরি আহত হয়ে ভরতি হাসপাতালে৷ প্রধানমন্ত্রী তথা আওয়ামি লিগ নেত্রী শেখ হাসিনার সম্পর্কে পিসতুতো দাদার জামাতা এই মশিউল৷ জায়ান তাঁর এবং হাসিনার ভাইঝি শেখ আমিনা সুলতানার ছেলে৷

[আরও পড়ুন : যৌন হয়রানি ঠেকাতে উদ্যোগ, সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিশেষ কমিটি গঠন বাংলাদেশ সরকারের]

সূত্রের খবর, আওয়ামি লিগের সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য এবং প্রাক্তন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ফজলুল করিম সেলিমের হাসিনার পিসতুতো দাদা৷ তাঁর মেয়ে শেখ আমিনা সুলতানা স্বামী মশিউল হক চৌধুরি এবং দুই ছেলেকে নিয়ে শ্রীলঙ্কা গিয়েছিলেন৷ ছিলেন কলম্বোর পাঁচতারা একটি হোটেলে। গ্রাউন্ড ফ্লোরের রেস্তরাঁয় জলখাবার করতে গিয়েছিলেন মশিউল এবং তাঁর বড় ছেলে জায়ান চৌধুরি। ছোট ছেলে জোহানকে নিয়ে শেখ সুলতানা ওই সময় হোটেলের ঘরে ছিলেন। বোমা হামলায় পর মশিউল হক চৌধুরি আহত হন এবং জায়ানকে অনেকক্ষণ পাওয়া যাচ্ছিল না। শেষমেশ তার মৃতদেহ উদ্ধার হয়৷

শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলায় হতাহতের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও শোকপ্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি মহম্মদ আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রাষ্ট্রপতির কার্যালয় থেকে শোকবার্তায় বোমা হামলায় নিহতদের আত্মার শান্তি ও আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেন। তিনি এসময় শ্রীলঙ্কা সরকার ও জনগণের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের প্রেস উইং থেকে পাঠানো শোকবার্তায় শেখ হাসিনাও নিহতদের প্রতি গভীর শোকপ্রকাশ করে হামলার তীব্র নিন্দা করেছেন৷

[আরও পড়ুন : ২৭ বছরের প্রেমিকের টানে মার্কিন মুলুক থেকে বাংলাদেশে প্রৌঢ়া]

এদিকে, কলম্বোয় হামলার পর রাজধানী ঢাকার কূটনীতিক পাড়া গুলশান,বনানী এবং ধর্মীয় উপাসনালয়গুলোর বাইরে বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ঢাকা মহানগর পুলিশের কূটনৈতিক নিরাপত্তা বিভাগের উপ কমিশনার হায়াতুল ইসলাম বলেন, ‘‘নিরাপত্তার বিষয়ে পুলিশ সদা সতর্ক। শ্রীলঙ্কার ঘটনার পর দূতাবাস ও হাইকমিশনগুলোতে বাড়তি কিছু সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।’’ ঢাকার ফার্মগেট ও তেজগাঁও এলাকায় বেশ কয়েকটি গির্জা রয়েছে। কাকরাইল ও রমনা এলাকায় রয়েছে তিনটি গির্জা। এসব গির্জাতেও বাড়তি নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে৷ বাংলাদেশের খ্রিস্টানরাও ইস্টার সানডে-তে যিশুর পুনরুত্থান দিবস পালন করছিলেন৷ তবে কলম্বোর খবর পৌঁছাতেই সেই রেশ কাটে৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং