BREAKING NEWS

৭ শ্রাবণ  ১৪২৮  শনিবার ২৪ জুলাই ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

করোনা আতঙ্কের মধ্যে পরকীয়ার জের, মায়ের প্রেমিককে পিটিয়ে খুন করল যুবক

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: March 27, 2020 5:01 pm|    Updated: March 27, 2020 5:02 pm

a youth allegedly murdered by girlfriend's son at Santahar in Bangladesh

ছবিটি প্রতীকী

সুকুমার সরকার, ঢাকা: করোনা আতঙ্কের জেরে কাঁপছে গোটা বিশ্ব। সংক্রমণের ভয়ে বাড়ির বাইরে বেরোচ্ছেন না প্রায় কেউই। এর মাঝে দু-একটি মানুষ কোনও কিছুকে পাত্তা না দিয়ে বাড়ি থেকে বেরোনোর চেষ্টা করে পুলিশ ও সেনার হাতে বেধড়ক পিটুনি খেয়েছে। সেই ছবি দেখে ভয় পেয়েছে বাকি বীরপঙ্গুবরা। ফলে রাস্তায় কমেছে ভিড়। কিন্তু, এর মধ্যেই পরকীয়া সম্পর্কের জেরে খুন হতে হল ২৮ বছরের এক যুবককে। বৃহস্পতিবার ঘটনাটি ঘটেছে বাংলাদেশের উত্তরপ্রান্তে অবস্থিত বগুড়া জেলার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার পৌর এলাকায়। খবর পেয়ে অভিযুক্ত বাঁধন মাসুদ(২৫) ও তার মা সীমা বেগম(৪০) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, রানা মাসুদের মৃত্যুর পর তাঁর ছেলে বাঁধন ও স্ত্রী সীমা সান্তাহার এলাকার রেল ইয়ার্ড কলোনির বাড়িতেই থাকত। প্রথমে সব ঠিক থাকলেও কিছুদিন আগে স্থানীয় যুবক বাবু(২৮)-র সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক তৈরি হয় সীমার। এর জেরে প্রায় দিনই তার বাড়িতে রাত কাটাতে শুরু করে বাবু। কিন্তু, কোনওভাবেই এই ঘটনা মেনে নিতে পারেনি বাঁধন। মাকে বারণ করার সঙ্গে সঙ্গে বাবুকে বাড়িতে আসতে একাধিকবার নিষেধ করেছিল সে। কিন্তু, তার কোনও কথাতেই গুরুত্ব দেয়নি বাবু ও সীমা।

[আরও পড়ুন: খালেদা জিয়ার মুক্তির সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাল আমেরিকা ]

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে একাধিকবার তাদের মধ্যে গন্ডগোলও হয়। আর বৃহস্পতিবার তা চরমে পৌঁছয়। একটি লোহার রড দিয়ে বাবুকে পিটিয়ে হত্যা করে বাঁধন। তারপর ঘটনাটি লুকোনোর জন্য মায়ের সাহায্যে স্থানীয় হার্ভের স্কুলের সামনে থাকা পৌরসভার ডাস্টবিনের সামনে রেখে যায়। যদিও শেষ রক্ষা হয়নি। মৃতদেহটি উদ্ধার হওয়ার পরেই তদন্তে নেমে সীমা ও বাঁধনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: ‘সবাই ঘরে থাকুন, গরিব মানুষরা খাদ্য ও অর্থ পাবেন’, আশ্বস্ত করলেন শেখ হাসিনা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement