২৬ কার্তিক  ১৪২৬  বুধবার ১৩ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুকুমার সরকার, ঢাকা: আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডে উত্তাল বাংলাদেশ। এর জেরে এবার ছাত্র রাজনীতি নিসিদ্ধ করল বুয়েট (বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অফ ইঞ্জিনিয়ারিং এণ্ড টেকনোলজি)। পাশাপাশি, আবরার হত্যায় অভিযুক্ত ১৯ জন পড়ুয়াকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয়টির কর্তৃপক্ষ

[আরও পড়ুন: নজরে ‘ড্রাগন’, বাংলাদেশ উপকূলে অত্যাধুনিক রাডার বসাচ্ছে ভারত]

গোটা ঘটনার জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন বুয়েটের উপাচার্য সাইফুল ইসলাম। শুক্রবার সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটোরিয়ামে উপাচার্য ও আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মধ্যে আলোচনার পর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আবরার ফাহাদের হত্যার বিচার দাবিতে ছাত্ররা চারদিন যাবত টানা আন্দোলন করার পর উপাচার্য নিজের বিশেষ ক্ষমতা প্রয়োগ করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির চত্বরে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করেছেন। এদিকে এই ঘৃণ্য ঘটনার প্রতিবাদে প্রতিদিনের মতো শনিবারও সকাল থেকে বিক্ষোভ মিছিল করছেন শিক্ষার্থীরা। গতকাল মিছিল শেষে, খুনিদের ফাঁসির দাবিতে পলাশী থেকে বকশীবাজার সড়ক বন্ধ করে স্লোগান দিতে থাকেন বিক্ষোভকারীর।

এদিকে, পুলিশের জালে পড়েছে আবরার ফাহাদ হত্যা মামলার অন্যতম অভিযুক্ত ফেরার শামীম বিল্লাহ। শুক্রবার বিকেলে ভারতীয় সীমান্ত লাগোয়া বাংলাদেশের সাতক্ষীরা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) তরফে জানানো হয়, এদিন স্থানীয় সময় বিকেল চারটে নাগাদ সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দর এলাকায় হানা দিয়ে শামীমকে গ্রেপ্তার করে ডিএমপির গোয়েন্দা বিভাগের একটি দল। ভারতে পালিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিল বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশকে জানিয়েছে সে। বুয়েটের দ্বিতীয় বর্ষের ১৭তম ব্যাচের নেভাল আর্কিটেকচার অ্যান্ড মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ছাত্র শামীম শের-ই-বাংলা হলেরই আবাসিক।

উল্লেখ্য, ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পাদিত চুক্তির বিরোধিতা করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়ায় খুন হন বুয়েটের ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরার ফাহাদ। রবিবার রাতে তাকে শের-ই-বাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষ থেকে ডেকে নিয়ে ২০১১ নম্বর কক্ষে বেধড়ক পেটান বুয়েট শাসকদলের নেতাকর্মীরা। আবরার হত্যায় উত্তাল হয়ে ওঠে সারাদেশ। চলছে ব্যাপক বিক্ষোভ। দু’পাশে সিসি ক্যামেরা বসাতে এবং শের-ই-বাংলা হলের প্রভোস্টকে প্রত্যাহার করতে হবে।

[আরও পড়ুন: ত্রিপুরাকে ফেনী নদীর জল দেবে বাংলাদেশ, ঘোষণা হাসিনার]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং