৭ শ্রাবণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুকুমার সরকার, ঢাকা: বাংলাদেশে ফের চরমে রাজনৈতিক হিংসা। এবার প্রকাশ্যে কুপিয়ে খুন করা হল ওই দেশের শাসকদল আওয়ামি লিগের নেত্রী বিউটি আক্তার কুট্টিকে।  

[আরও পড়ুন: বিএনপির সদর দপ্তরে ফের হামলা বিক্ষুব্ধ ছাত্রনেতাদের, জখম ১]

পুলিশ সূত্রে খবর, বুধবার রাজধানী ঢাকার অদূরে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে এই ঘটনাটি ঘটেছে। এদিন সকালে আর পাঁচটা দিনের মতোই উপজেলার চানপাড়া থেকে পশ্চিমগাঁও এলাকার দিকে হেঁটে যাচ্ছিলেন বছর চল্লিশের বিউটি। তখনই মাঝরাস্তায় তাঁর উপর চড়াও হয় দুষ্কৃতীরা। ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাঁকে এলোপাথাড়ি কোপানো হয়। রক্তাক্ত অবস্থায় রাস্তায় পড়ে যান তিনি। তাঁর চিৎকার শুনে স্থানীয়রা এগিয়ে এলে, পালিয়ে যায় হামলাকারীরা। এদিকে, শরীরে একাধিক আঘাতের জেরে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয় ওই আওয়ামি নেত্রীর। তড়িঘড়ি তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে গেলেও শেষ রক্ষা করা সম্ভব হয়নি। সেখানেই তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।  

নিহত আওয়ামি লিগের নেত্রী বিউটি আক্তার কুট্টি উপজেলার পশ্চিমগাঁও এলাকার প্রয়াত হাসান মহুরির স্ত্রী। তিনি কায়েতপাড়া ইউনিয়নের ৭, ৮, ৯নং ওয়ার্ডের মহিলা ইউপি সদস্য। কী কারণে তাঁকে হত্যা করা হয়েছে, সে বিষয়ে এখনও নিশ্চিত তথ্য হাতে পায়নি পুলিশ। গত বছরের ২৯ অক্টোবর রাতে রূপগঞ্জে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে চানপাড়া পুনর্বাসন কেন্দ্রে বিউটি আক্তারের দলের সঙ্গে প্রতিপক্ষের গুলি বিনিময় ও সংঘর্ষ ঘটে। ওই ঘটনায় বিউটির স্বামী হাসান মহুরি গুরুতর আহত হন। পরে তাঁকে রাজধানীর ধানমণ্ডির জাপান-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতালে ভরতি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত বছরের ৬ নভেম্বর তাঁর মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় বিউটি বাদী হয়ে হত্যা মামলা করেছিলেন। ওই ঘটনার জেরেই কি হত্যা করা হয়েছে বিউটিকে? এই প্রশ্নের উত্তরে তদন্ত শুরু করছে পুলিশ। 

[আরও পড়ুন: মানব পাচার রুখতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ বাংলাদেশ, পুলিশের গুলিতে খতম ৩ পাচারকারী       

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং