৩০ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ১৭ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুকুমার সরকার, ঢাকা: শিশু-যুবকদের স্বার্থে PUBG খেলার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল বাংলাদেশ সরকার। কিন্তু তাতে সাধুবাদ পাওয়া তো দূরস্ত। পরিবর্তে সমালোচনার শিকার হতে হয়েছে সরকারকে। স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করা হচ্ছে বলেও উঠেছে অভিযোগ। আর তার পরিপ্রেক্ষিতেই নিজেদের সিদ্ধান্ত বদল করল বাংলাদেশ সরকার। কয়েক ঘণ্টার মধ্যে PUBG-র উপর থেকে উঠল নিষেধাজ্ঞা।

‘প্লেয়ার আননোনস ব্যাটেল গ্রাউন্ড’ বা PUBG বর্তমানে বিশ্বজুড়ে আলোচিত সবচেয়ে জনপ্রিয় অনলাইন গেম। শিশু থেকে কিশোর এই অনলাইন গেমে আকৃষ্ট। যার জেরে খাওয়াদাওয়ার মতো নিত্যনৈমিত্তিক কাজও নাকি ছেড়েই দিচ্ছেন অনেক। কৈশোরও এই খেলার জেরে প্রায় বিপন্ন। সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে শুক্রবার বাংলাদেশ সরকারের তরফে এই অনলাইন গেমের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) সাইবার সিকিউরি অ্যান্ড ক্রাইম বিভাগের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার মহম্মদ নাজমুল ইসলাম ফেসবুক পোস্টে একথা জানান। তিনি লেখেন, তিনি লেখেন, “PUBG খেলতে গিয়ে বিপাকে পড়েছেন বহু তরুণ-কিশোর। তাই সকলের কথা ভেবে বাংলাদেশে এই খেলা বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হল। আশা করি সকল নাগরিক এতে খুশি হবেন।”

[আরও পড়ুন: ভরতুকিহীন রেশন কার্ডের আবেদন শুরু ৫ নভেম্বর, জেনে নিন পদ্ধতি]

আদতে যেমন ভেবেছিল বাংলাদেশ সরকার, তার ঠিক বিপরীত প্রতিক্রিয়া পান প্রায় সকলেই। স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন অনেকেই। তার জেরে শুক্রবার রাতে আবারও সিদ্ধান্ত বদল করে বাংলাদেশ সরকার। ডাক ও টেলিকমমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার আরেকটি ফেসবুকে পোস্ট করেন। ওই পোস্টে তিনি লেখেন, ‘নিষিদ্ধ ঘোষণা করায় PUBG ব্যবহারকারীরা খুশি হননি। তাই তাঁদের কথা ভেবেই এই অনলাইন গেমটির উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হল।” পাশাপাশি তিনি আরও জানান, শেখ হাসিনা সরকার কারও ব্যক্তিগত সিদ্ধান্তে হস্তক্ষেপ করতে চায় না।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং