৭ মাঘ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২১ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুকুমার সরকার, ঢাকা: ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলাদেশের শুধু পাশে থাকাই নয়, এক কোটি শরণার্থীকে আশ্রয়-আহার-বাসস্থান ও মিত্রবাহিনী গঠন যুদ্ধেও অংশ নিয়েছিল ভারত। এবার বাংলাদেশের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত ক্রিকেট টুর্নামেন্টেও যুক্ত হচ্ছে বন্ধুদেশ ভারত।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ঘটা করে উদযাপন করতে আগামী মার্চে দুটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ আয়োজন করবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বা বিসিবি। ঢাকার মিরপুরে এশিয়ান অলস্টার একাদশ ও বিশ্ব একাদশে ভাগ হয়ে ম্যাচ দুটি খেলবেন সারা বিশ্বের তারকা ক্রিকেটাররা- এটাই এত দিন জানা ছিল। এবার জানা গেল আয়োজনটা আরও বড়, আরও জমকালো। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উদযাপনে সরাসরি যুক্ত হচ্ছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। বঙ্গবন্ধু বিপিএলের টুর্নামেন্ট শুরু হবে আগামী ১১ ডিসেম্বর। এর তিনদিন আগে ৮ ডিসেম্বর হবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। জমকালো এ আসরের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধন অনুষ্ঠান সামনে রেখে ‘হোম অব ক্রিকেট‘ মিরপুরের শের-ই-বাংলায় তৈরি হচ্ছে বিশাল মঞ্চ।

[আরও পড়ুন: সংস্থার বিরুদ্ধে আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ, কাঠগড়ায় ধোনি]

দুই দিন আগে মুম্বইয়ে বোর্ডের বার্ষিক সভা শেষে বিসিসিআইয়ের সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, মার্চে তাঁরা বিশ্ব একাদশ বনাম এশিয়া একাদশের একটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ আয়োজন করবেন। আর এই ম্যাচ দিয়ে উদ্বোধন হবে আহমেদাবাদের ১ লাখ ১০ হাজার দর্শক ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন নতুন সর্দার প্যাটেল স্টেডিয়ামে। প্রায় ৭০০ কোটি টাকা ব্যয়ে সংস্কার করে নবরূপ দেওয়া আহমেদাবাদের এই স্টেডিয়ামটি হতে যাচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রিকেট স্টেডিয়াম, যেটির উদ্বোধন করার কথা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির। বিসিসিআই উপলক্ষটা আরও বড় করতে সেখানে আয়োজন করতে চাইছে বিশ্ব একাদশ বনাম এশিয়া একাদশের টি-টোয়েন্টি ম্যাচ।

বিসিবির কথা যদিও আসেনি সৌরভের মন্তব্যে। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে হতে যাওয়া দুটি টি-টোয়েন্টির জন্য বিসিবি যখন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের কাছে কিছু তারকা ক্রিকেটার চায়, তখনই এসেছে আইডিয়াটা-ওই দুটি ম্যাচের সঙ্গে আরেকটা ম্যাচ জুড়ে দিলেই আয়োজন হতে পারে দুর্দান্ত একটা সিরিজ। যে সিরিজের শেষ ম্যাচটি হতে পারে আহমেদাবাদে। বিসিসিআইয়ের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে আগামী মার্চে বিশ্ব একাদশ বনাম এশিয়া একাদশের টি-টোয়েন্টি সিরিজ আয়োজনের বিষয়টি নিয়ে বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরি বলেছেন, ‘বিষয়টা আলোচনার পর্যায়ে আছে। তিনি (সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়) যদি বলে থাকেন, সেটা এ আলোচনার প্রেক্ষাপটেই বলেছেন। তাঁরা বিষয়টা আরও এগিয়ে নিচ্ছে। যে কোনও সময়ে বসে এটা নিয়ে সবকিছু চূড়ান্ত করা হবে। তিনটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ আয়োজন করা হবে মার্চের তৃতীয় সপ্তাহে। প্রথম দুটি ম্যাচে মিরপুরে, বাকিটা হবে আহমেদাবাদে। বিসিবি গত জুলাইয়ে দুটি ম্যাচের আইসিসির অনুমোদন নিয়ে রেখেছে।

বিসিসিআইয়ের এক শীর্ষ কর্মকর্তা সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, অনুমোদন নেওয়া হয়েছে তাঁদের ম্যাচটির জন্যও। এবার দুই বোর্ড মিলে সূচি তৈরি করবে। তৈরি করবে দল। যেহেতু বিসিসিআই হাত বাড়িয়ে দিয়েছে বিসিবির দিকে, এ সিরিজে ভারতের তারকা ক্রিকেটারদের উপস্থিতি নিশ্চিতই বলা যায়। মিরপুরের দুটি ম্যাচ বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে। আহমেদাবাদের ম্যাচটিও কি বঙ্গবন্ধুর নামে হবে? নিজামউদ্দিন বলছেন, ‘টুর্নামেন্ট আয়োজনের উদ্যোগ যেহেতু আমাদের, একটি ম্যাচ অন্য দেশে হলেও এটির নাম বদলে যাওয়ার সুযোগ নেই।’

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং