×

৭ চৈত্র  ১৪২৫  শনিবার ২৩ মার্চ ২০১৯   |   শুভ দোলযাত্রা।

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও #IPL12 ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুকুমার সরকার, ঢাকা: হেলমেট ছাড়া মোটরসাইকেলে চড়ে সমালোচনার মুখে পড়া পুণ:দায়িত্বপ্রাপ্ত তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনেইদ আহমেদ পলক এবার পায়ে হেঁটে অফিসে গেলেন। রাজধানী ঢাকার রাস্তায় তীব্র যানজট এড়াতে বৃহস্পতিবার সকালে পায়ে হেঁটেই অফিসে যান তিনি। এদিকে, হেলমেট ছাড়া মোটরসাইকেলে সওয়ারি হওয়ার ঘটনায় প্রতিমন্ত্রী পলক দুঃখপ্রকাশ করেছেন বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। পলক বলেছেন, ‘আমার ভুল হয়েছে, আর করব না।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমি তাঁকে জিজ্ঞেস করেছিলাম। উত্তরে তিনি বলেছেন, আমার ভুল হয়েছে, আর করব না। এজন্য আমি দুঃখিত। আর এমন হবে না। এভাবে একজন মন্ত্রী তার ভুল স্বীকার করার পর আমি তো আর কিছু বলতে পারি না।’ গত ৮ জানুয়ারি নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যরা নিজ নিজ অফিসে প্রথম দিনের কাজে যোগ দেন। সেদিন যানজটের কবলে পড়ে জুনেইদ আহমেদ পলক দ্রুত পূর্বনির্ধারিত কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করতে নিজের গাড়ি রেখে মোটরসাইকেলে চড়ে অফিসে যান। এ সময় তার মাথায় হেলমেট ছিল না। সেই ছবি তিনি নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে পোস্ট করেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় নেটিজেনদের সমালোচনার শিকার হন তিনি। প্রতিমন্ত্রীর এপিএস নাজমুল হক বকুল নিজের ফেসবুকে লেখেন, ‘সমালোচনার করার জন্য আপনাদের একটা হেলমেটবিহীন ছবিই যথেষ্ট, যদিও ফিরতিপথে তিনি ঠিকই হেলমেট জোগাড় করে পরেছিলেন সেটা আপনাদের কাছে বিবেচ্য নয়৷ মানুষটা আপনাদের সমালোচনাকে শ্রদ্ধা করেন।’ তিনি আরও লেখেন, ‘ঢাকা শহরের যানজট রাতারাতি দূর করা সম্ভব না। অফিসে নির্ধারিত সময়ে পৌঁছানোর দায়বদ্ধতা আছে। উনি রাজপথ এবং তৃণমূল স্তর থেকে এই পর্যন্ত এসেছেন, কিন্তু কখনওই নিজেকে শিকড় থেকে বিচ্ছিন্ন করেননি৷’

[বাইকে চড়ে প্রথম দিন কাজে গেলেন হাসিনার মন্ত্রী]

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগে দ্রুত যেতে মোটরসাইকেলে ওঠেন প্রতিমন্ত্রী। সে সময় তাঁর মাথায় হেলমেট ছিল না। পরে সেই ছবি তিনি নিজের ফেসবুক পেজে পোস্ট করে লেখেন, ‘বাইকে চড়ে প্রথম দিন অফিসে’। তবে আইনপ্রণেতা হয়েও হেলমেট ছাড়া মোটরসাইকেলে চড়ায় বেশ সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং