১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  শুক্রবার ২৭ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বাংলাদেশে গ্রেপ্তার হিজবুত তহরিরের ৪ জঙ্গি, ফাঁস ‘খিলাফত’ প্রতিষ্ঠার ষড়যন্ত্র

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: November 19, 2020 12:35 pm|    Updated: November 19, 2020 1:08 pm

An Images

সুকুমার সরকার, ঢাকা: ফাঁস ‘খিলাফত’ স্থাপনের জেহাদি ষড়যন্ত্র। বাংলাদেশের (Bangladesh) রাজধানী ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার কুখ্যাত জঙ্গি সংগঠন হিজবুত তহরিরের ৪ সদস্য।

[আরও পড়ুন: খালেদার সঙ্গে ‘মতের অমিল’ পুত্র তারেকের, অন্তর্দ্বন্দ্বে জর্জরিত বিএনপি]

জানা গিয়েছে, গোয়েন্দাদের পাঠানো গোপন খবরের ভিত্তিতে বুধবার ভোরে অভিযান চালিয়ে ঢাকার দক্ষিণখানের কাওলা এলাকার ছান্দারটেক থেকে চার জঙ্গিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশের জঙ্গিদমন শাখা (ATU)। এটিইউর পুলিশ সুপার (মিডিয়া অ্যান্ড অ্যাওয়ারনেস) মহম্মদ আসলাম খান জানান, ধৃতদের নাম হচ্ছে জহিরুল ইসলাম ওরফে টিটু, রাশিদুল ইসলাম ওরফে হৃদয়, আল মাহমুদ ও মহম্মদ মুজাহিদ। তাদের মধ্যে সংগঠনটির ঢাকা মহানগর ও গাজীপুর দক্ষিণ এলাকার দায়িত্বে ছিল মাহমুদ। ধৃত জঙ্গিদের কাছ থেকে বেশ কয়েকটি মোবাইল ফোন, কম্পিউটারের ১টি সিপিইউ, উগ্র মতাদর্শের বেশ কিছু বই, একই ধরনের জেহাদি বইপত্র, অনলাইন কনটেন্টের পিডিএফ ফাইল, হিজবুত তহরিরের মিডিয়া উলাইয়াহ বাংলাদেশের কিছু প্রকাশনা, পুস্তিকা, প্রচারপত্র ও ডায়েরি পাওয়া গিয়েছে। এটিইউয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা ‘খিলাফত’ প্রতিষ্ঠার উদ্দেশ্যে রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্র, প্রচারপত্র বিতরণ ও পোস্টার সাঁটানো, অনলাইন সম্মেলন ও অনলাইনভিত্তিক প্রচারণা চালিয়ে আসছিল। তাঁদের বিরুদ্ধে দক্ষিণখান থানায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে মামলা করা হয়েছে।

উলেখ্য, বাংলাদেশে জঙ্গিবাদ ছড়িয়ে দিতে পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই (ইন্টার সার্ভিসেস ইন্টেলিজেন্স) এবং বাংলাদেশ জামাতে ইসলামি প্রত্যক্ষভাবে জড়িত বলে এর আগে একাধিক গোয়েন্দা রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে। ২০১৪ সালে নির্বাচনে ক্ষমতায় আসেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর জামাতের ছাত্র সংগঠন ছাত্র শিবিরের দুর্ধর্ষ ক্যাডাররা নব্য জেএমবিতে যোগ দেয়। তারাই নব্য জেএমবি’র পরিচালিকা শক্তি। পালন করেছে সামরিক কমান্ডারের দায়িত্ব। পুলিশের জঙ্গিবিরোধী অভিযানে তাদের অনেকে নিহতও হয়েছে। লাগাতার চলা অভিযানের ফলে দেশে অনেকটাই বেকায়দায় পড়েছে জঙ্গি সংগঠনগুলি।

[আরও পড়ুন: সৃজনশীলতার চর্চাই নেই, করোনা কালে নতুন পদ্ধতিতে প্রশ্ন তৈরিতে সমস্যায় বাংলাদেশের শিক্ষকরা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement