১৩ কার্তিক  ১৪২৭  শুক্রবার ৩০ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

করোনা ভ্যাকসিনের ট্রায়ালের পর মূল্যায়ণ, বিশ্বের কেন্দ্রীয় নেটওয়ার্কে নির্বাচিত বাংলাদেশ

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: October 4, 2020 3:28 pm|    Updated: October 4, 2020 3:33 pm

An Images

সুকুমার সরকার, ঢাকা: এতদিন ধরে করোনা (Coronavirus) নিয়ে বিস্তারিত গবেষণার স্বীকৃতি পেল বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র (ICDDRB)। বিশ্বজুড়ে করোনার টিকা নিয়ে যে ৫টি সংস্থা নিয়ে কেন্দ্রীয় নেটওয়ার্ক তৈরি হয়েছে, তার মধ্যে একটি নির্বাচিত হয়েছে ICDDRB. আন্তর্জাতিক স্তরে গঠিত মহামারী মোকাবিলা বিষয়ক একটি জোটের (CEPI) তরফে এ কথা ঘোষণা করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় নেটওয়ার্কের সদস্যদের মধ্যে রয়েছে ভারতের একটি সংস্থাও। বাকি তিন সংস্থা ইংল্যান্ড, ইটালি ও কানাডার। বিশ্বজুড়ে এমন একটি কাজ করার সুযোগ পেয়ে স্বভাবতই খুশি ICDDRB. পাশাপাশি কাজটি অত্যন্ত দায়িত্বের, তাও মানছেন কর্তারা।

মহামারী মোকাবিলায় কেন্দ্রীয় নেটওয়ার্কটির কাজটা ঠিক কী? এতদিন ধরে করোনার যেসব প্রতিষেধকের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ হয়েছে, স্বেচ্ছাসেবকদের কাছ থেকে তার প্রতিক্রিয়া নথিবদ্ধ করে তার মূল্যায়ণ করা। সেইসঙ্গে ভ্যাকসিনগুলির মধ্যে প্রাথমিকভাবে একটা তুলনামূলক বিচার করার ভারও এই কেন্দ্রীয় নেটওয়ার্কের। তার জন্য CEPI পাঁচটি ল্যাবরেটরিও নির্বাচন করেছে। বাংলাদেশের ICDDRB ছাড়াও এ নিয়ে গবেষণা চলবে ভারতের ট্রান্সলেশন্যাল হেলথ সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজিক্যাল ইনস্টিটউটে (THSTI), কানাডার নেক্সেলিস, ইটালির ভিসমেডিরিশ্রল, ইংল্যান্ডের পাবলিক হেলথ। এই ৫ সংস্থাতেই চলবে গবেষণা, মূল্যায়ণ।

[আরও পড়ুন: বাংলাদেশে কাজ শেষ, এবার বিদেশ মন্ত্রকের নতুন দায়িত্বে প্রাক্তন হাইকমিশনার রিভা গঙ্গোপাধ্যায়]

আইসিডিডিআরবি’র কার্যনির্বাহী পরিচালক অধ্যাপক জন ডি ক্লেমেনসের কথায়, ‘‘কোভিড ভ্যাকসিন প্রতিরোধক প্রতিক্রিয়া এমন পদ্ধতিতে পরিমাপ করা হবে যা বৃহত্তর অর্থে জনস্বাস্থ্যের পক্ষে বিশ্বব্যাপী একটি প্রচেষ্টা। এই মূল্যায়ণ অতি প্রয়োজনীয় হয়ে উঠবে।’’ তিনি আরও বলেন, ‘‘আমরা একটি কেন্দ্রীয় পরীক্ষাগার নেটওয়ার্ক স্থাপনের জন্য CEPI-এর উদ্যোগের প্রশংসা করছি। ভ্যাকসিন মূল্যায়ণে কয়েক দশকের অভিজ্ঞতা সম্পন্ন একটি সংস্থা হিসাবে আমরা নেটটওয়ার্কটিতে অবদান রাখতে আগ্রহী।’’

[আরও পড়ুন: শরণার্থী শিবিরে দস্যুদের দাপট, রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে বিপাকে বাংলাদেশিরাই]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement