১১ বৈশাখ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২৫ এপ্রিল ২০১৯ 

Menu Logo নির্বাচন ‘১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও #IPL12 ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুকুমার সরকার, ঢাকা: ডাক্তারি পড়তে গিয়ে বাংলাদেশে ঢাকায় রহস্যজনক ভাবে মৃত্যু হল কাশ্মীরের এক ছাত্রীর। মৃত ছাত্রীর নাম আয়াতুল এইন। বয়স ২২৷ মৃতা কাশ্মীরের অনন্তনাগের দিয়ালগাম এলাকার বাসিন্দা বলে জানা গিয়েছে৷ ছাত্রীর মৃত্যুর খবর আসতেই বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের সঙ্গে যোগাযোগ করেন জম্মু-কাশ্মীরের দুই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা ও মেহবুবা মুফতি৷ মৃতদেহ দ্রুত ভারতে ফিরিয়ে আনাতে অনুরোধ করেন তাঁরা৷

[ আরও পড়ুন:  পান্তা খেয়েছেন তো? নববর্ষের অনুষ্ঠানে স্পষ্ট বাংলা ভুটানি প্রধানমন্ত্রীর গলায়  ]

জানা গিয়েছে, মৃত ছাত্রী বাংলাদেশের তাহির-উল-নিসা মেডিক্যাল কলেজের ডাক্তারি পড়ছিলেন৷ শনিবার সকালে হস্টেলের অন্যান্য ছাত্রীরা অনেক ডাকাডাকি করলেও তিনি দরজা খুলছিলেন না৷ তখন তাঁরা হস্টেল কর্তৃপক্ষকে খবর দেন৷ হস্টেলের নিরাপত্তারক্ষীরা এসে দরজা ভেঙে দেখেন, বিছানার উপর পড়ে রয়েছে আয়াতুলের নিথর দেহ৷ তখন তাঁরাই খবর দেন পুলিশে৷ এবং পুলিশ এসে ওই ছাত্রীর দেহ উদ্ধার করে৷ মৃত ছাত্রীর পরিবারের তরফে তাঁর ভাই নাভিদ ভাট জানান, ‘‘শুক্রবার রাতেও আমাদের সঙ্গে বোনের কথা হয়৷ কিন্তু পরের দিন সকালে প্রথমে আমাদের ফোন করে জানানো হয় যে, আয়াতুল ঘুম থেকে উঠছে না৷ এরপর ফের ফোনে জানান হয়, হস্টেলের রুমে মৃত অবস্থায় পাওয়া গিয়েছে আয়াতুলকে।’’

[ আরও পড়ুন: পয়লা বৈশাখে ইলিশের আকাশছোঁয়া দাম, মাথায় হাত ওপার বাংলার ক্রেতাদের ]

বিদেশে পড়তে গিয়ে মেয়ের অস্বাভাবিক মৃত্যুতে স্বভাবতই ভেঙে পড়েছে আয়াতুলের পরিবার৷ তাঁর মৃত্যুর সঠিক কারণ খুঁজতে যথাযথ তদন্তের দাবি তুলেছেন পরিবারের সদস্যরা। পুলিশের অনুমান, প্রেমঘটিত কোনও কারণে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়ে থাকতে পারেন কাশ্মীরের ওই মেয়েটি৷ তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলেই সমস্ত বিষয়টা পরিষ্কার হবে বলে জানিয়েছেন পুলিশ আধিকারিকরা৷ এই ঘটনার পরেই বিদেশমন্ত্রীর সঙ্গে যোগাযোগ করেন জম্মু-কাশ্মীরের দুই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা ও মেহবুবা মুফতি৷ মৃত ছাত্রীর দেহ দ্রুত ভারতে ফিরিয়ে আনার আবেদন করেন তাঁরা৷ এই ঘটনা নিয়ে  টুইট করেন ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা ওমর আবদুল্লা এবং পিডিপি নেত্রী মেহেবুবা মুফতি৷

 

 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং