২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

স্ত্রীর অধিকার কার? বিবাদের জেরে এক স্বামীকে কুপিয়ে খুনে অভিযুক্ত অপরজন

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: August 3, 2020 1:51 pm|    Updated: August 3, 2020 1:51 pm

An Images

সুকুমার সরকার, ঢাকা: এক স্ত্রীকে নিয়ে দুই স্বামীর মধ্যে সংঘর্ষ। কুপিয়ে এক স্বামীকে খুনের অভিযোগ উঠল আরেকজনের বিরুদ্ধে। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে বাংলাদেশের দক্ষিণে বাগেরহাট জেলার শরণখোলায়। সংঘর্ষে আহত হয়েছেন অভিযুক্তও। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে (Dhaka Medical College) তাঁর চিকিৎসা চলছে। এ নিয়ে ঢাকার শাহবাগ থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে।

জানা গিয়েছে, নিহতের নাম শাহ আলম বিশ্বাস। তিনি শরণখোলার পশ্চিম খাদা গ্রামের মানিক হাওলাদারের মেয়ে নুপূর বেগমের প্রথম স্বামী ছিলেন। বছর ২০ আগে পশ্চিম কদমতলায় শাহ আলমের সঙ্গে নুপূরের বিয়ে হয়। বিদেশে থাকতেন দুই সন্তানের বাবা শাহ আলম। সন্তানদের নিয়ে শরণখোলায় একাই থাকতেন নুপূর। নিহত শাহ আলমের দাদা ফারুকের অভিযোগ, স্বামী বিদেশে থাকার সুযোগে একই গ্রামের মুদি ব্যবসায়ী রহমান হাওলাদারের সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে নুপুর। বেশ কিছুদিন প্রেম চলার পর প্রথম স্বামীর অজান্তে রহমান ও নুপূর বিয়ে করে।

[আরও পড়ুন: সৌদিতে সাংবাদিকতা করতে পারবেন না বাংলাদেশি নাগরিকরা, নয়া ফরমান জারি রিয়াধের

এই খবর কানে পৌঁছতে স্বভাবতই ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন শাহ আলম বিশ্বাস। বাড়ি ফিরে আসেন তিনি। এরপর রবিবার রাগের বশে স্ত্রীর দ্বিতীয় স্বামী রহমানকে ধারাল অস্ত্র দিয়ে এলোপাথাড়ি কোপান। খবর পেয়ে রহমান হাওলাদারের আত্মীয়স্বজন ঘটনাস্থল গিয়ে শাহ আলমের উপর পালটা হামলা চালায়। এতে তিনিও বেশ জখম আহত হন। জখম দু’জনকেই প্রথমে শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভরতি করা হয়। পরে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁদের খুলনা মেডিক্যাল হাসপাতালে স্থানান্তরিত করেন। সেখানে যাওয়ার পর রহমানের মৃত্যু হয়। শাহ আলমের শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আপাতত সেখানেই চিকিৎসাধীন তিনি। দুই স্বামীর মধ্যে এমন ঘটনায় স্ত্রী নুপূর নিজেই থানায় গিয়ে মামলা দায়ের করেছেন বলে পুলিশ সূত্রে খবর।

[আরও পড়ুন: দিল্লি-ঢাকা সম্পর্কে ফাটল নিয়ে গুজব ছড়াচ্ছে মিডিয়া, বললেন বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement