BREAKING NEWS

২০ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  বুধবার ৩ জুন ২০২০ 

Advertisement

চুক্তি কার্যকর, আগামী মাসেই বাংলাদেশের অনুষ্ঠান দেখা যাবে দূরদর্শনে

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: June 23, 2019 5:37 pm|    Updated: June 23, 2019 9:46 pm

An Images

সুকুমার সরকার, ঢাকা: জুলাই মাস থেকে বাংলাদেশ টেলিভিশনের অনুষ্ঠান সম্প্রচারিত হবে দূরদর্শনে। সেইসঙ্গে শোনা যাবে বাংলাদেশ বেতারের অনুষ্ঠানও। রবিবার ঢাকায় সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রকের সভাকক্ষে আয়োজিত সংবাদিক বৈঠকে একথা জানান তথ্যমন্ত্রী ডঃ হাসান মাহমুদ। তিনি বলেন, গত ৭ মে বাংলাদেশ টেলিভিশন ও প্রসার ভারতীর মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। সম্প্রতি এতে চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে ভারত সরকার। গত ২৫ মে বি-টিভির একটি কারিগরি দল ৩ দিনের সফরে নয়াদিল্লিও গিয়েছিল। দূরদর্শনে সম্প্রচার শুরু হলে বেতারে আরও কিছুটা সময় লাগবে।

[আরও পড়ুন- অপহরণ করে দুই কিশোরীকে একটানা ২০ দিন ধর্ষণ, গ্রেপ্তার অভিযুক্ত]

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে সবথেকে বেশি সাহায্য করেছিল ভারত। আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশেষজ্ঞদের মতে,  সেসময় ভারত যদি সহযোগিতা না করত তাহলে আরও কঠিন হত বাংলাদেশের লড়াই। তারপর থেকে আজ পর্যন্ত প্রায় প্রতিটি বিষয়েই একে অপরের দিকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে তারা।

রবিবারের এই অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী ডঃ এ কে আবদুল মোমেন এও বলেন, ‘‘বাংলাদেশ ও ভারতের রাজনৈতিক নেতাদের দূরদর্শিতাই দু’দেশের সম্পর্ককে দৃঢ় করেছে। বিষয়টি অন্যদেশের জন্য অনুকরণীয়।’’ ঢাকায় একটি বেসরকারি অনুষ্ঠানে এই মন্তব্য করেন তিনি। এপ্রসঙ্গে ড: মোমেন বলেন, “বিদেশনীতির ক্ষেত্রে বাংলাদেশ একটি আদর্শ। বাংলাদেশ ও ভারতের রাজনৈতিক নেতাদের পরিপক্কতা এবং দু’দেশের সম্পর্ক অন্য দেশের জন্য অনুকরণীয়। ভারত-বাংলাদেশ স্থল সীমানা, সমুদ্রসীমা, এমনকী গঙ্গার জল চুক্তি সংক্রান্ত সমস্যা আলাপ ও আলোচনার মাধ্যমে সমাধান হয়েছে। দু’দেশের রাজনৈতিক নেতাদের পরিপক্কতা ও দূরদৃষ্টির ফলেই এটা সম্ভব হয়েছে।”

বিদেশমন্ত্রী আরও বলেন, “দেশকে উন্নয়নশীল দেশ থেকে উন্নত দেশে রূপান্তরের ক্ষেত্রে আমাদের সামনে বহু চ্যালেঞ্জ আছে। আসলে যে দেশ উন্নয়ন করে তাদের বহুদিক থেকে বাধা আসে। আমাদের দেশেও আসতে পারে। সেই সমস্যা মোকাবিলা করার জন্য গণমাধ্যমকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে হবে। আগামী দু’বছর বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালনের সঙ্গে সঙ্গে প্রতিটি ক্ষেত্রে আরও সাফল্য অর্জন করতে চাই আমরা।”

[আরও পড়ুন- সুন্দরবনের জীববৈচিত্র্য রক্ষায় আরও ২টি টহল ফাঁড়ি বাংলাদেশে]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement