BREAKING NEWS

১৩ মাঘ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২৭ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Omicron: ওমিক্রন রোধে আরও কড়া বিধিনিষেধের পথে বাংলাদেশ, বন্ধ সভা-সমাবেশ

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: January 12, 2022 2:29 pm|    Updated: January 12, 2022 4:24 pm

No meering, rally of any religious organisation can be held in Bangladesh from January 13 to curb infection spread by Omicron | Sangbad Pratidin

সুকুমার সরকার, ঢাকা: করোনা ভাইরাসের (Coronavirus) তৃতীয় ঢেউয়ের পাশাপাশি নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের (Omicron)সংক্রমণ বাড়ছে বাংলাদেশে। যার জেরে ১৩ জানুয়ারি থেকে আরও কড়া বিধিনিষেধের পথে হাসিনা প্রশাসন। এই সংক্রান্ত নতুন একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, আন্তঃমন্ত্রণালয় সভার সিদ্ধান্ত, দেশের আর্থ-সামাজিক অবস্থা, অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড সচল রাখা এবং সামগ্রিক বিবেচনায় পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত কিছু বিষয়ের উপর বিধি নিষেধ আরোপ করা হল। যার মধ্যে অন্যতম ধর্মীয় সভা-মিছিল। ১৩ তারিখ থেকে এসব একেবারেই নিষিদ্ধ বাংলাদেশে (Bangladesh)। এছাড়া স্বাস্থ্যবিধি পালন এবং মাস্ক পরার বিষয়ে সকল মসজিদে জুম্মার নমাজের খুতবায় ইমামগণ সংশ্লিষ্টদের সচেতন করবেন।

Corona

সরকারি বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, দোকান, শপিং মল ও বাজারে ক্রেতা-বিক্রেতা এবং হোটেল, রেস্তরাঁ-সহ সব জনসমাগমস্থলে বাধ্যতামূলকভাবে সবাইকে মাস্ক পরতে হবে। অন্যথায় আইনানুগ শাস্তির মুখে পড়তে হবে। অফিস, আদালত-সহ ঘরের বাইরে মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক। স্বাস্থ্যবিধি পালন ঠিকমতো হচ্ছে কিনা, তা দেখতে সারা দেশে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হবে।

[আরও পড়ুন: বাংলাদেশের বিরুদ্ধে অপপ্রচার! আগুনে পুড়ে যাওয়া শিবিরের ছবি ভাইরাল করছে রোহিঙ্গারাই]

রেস্তরাঁয় বসে খাওয়া এবং আবাসিক হোটেলে থাকার জন্য অবশ্যই করোনা টিকার সার্টিফিকেট দেখাতে হবে। ১২ বছরের ঊর্ধ্বে সকল ছাত্রছাত্রীকে শিক্ষামন্ত্রক নির্ধারিত তারিখের পরে টিকার শংসাপত্র ছাড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হবে না। স্থলবন্দর, সমুদ্রবন্দর ও বিমানবন্দর সমূহে স্ক্রিনিং-এর সংখ্যা বাড়াতে হবে। পোর্টগুলিতে ক্রু-দের জাহাজের বাইরে আসার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করতে হবে। স্থলবন্দরগুলোতেও আগত ট্রাকের সঙ্গে শুধুমাত্র ড্রাইভার থাকতে পারবে। কোনও সহকারী আসতে পারবে না।

[আরও পড়ুন: Coronavirus: এক সপ্তাহে সংক্রমণ বৃদ্ধি ১১৫ শতাংশ! করোনার জোরাল কামড় বাংলাদেশে]

বিদেশে যাঁরা যাচ্ছেন, তাঁদের সঙ্গে আসা ব্যক্তিদের বিমানবন্দরে প্রবেশ বন্ধ করতে হবে। ট্রেন, বাস এবং লঞ্চ ক্ষমতার অর্ধেক সংখ্যক যাত্রী নিয়ে চলাচল করবে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে কার্যকারিতার তারিখ-সহ সুনির্দিষ্ট নির্দেশিকা জারি করবে। সমস্ত গণপরিবহণে চালক ও সহকারীদের আবশ্যিকভাবে কোভিড-১৯ (COVID-19) টিকাপ্রাপ্ত হতে হবে। বিদেশ থেকে আগত যাত্রী-সহ সবাইকে বাধ্যতামূলক করোনা টিকার সার্টিফিকেট এবং আরটি পিসিআর (RT-PCR) কোভিড টেস্টের রিপোর্ট সঙ্গে করে আনতে হবে। 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে