Breaking News

Bangladesh

জঙ্গিদের আখড়া বিশ্ববিদ্যালয়! প্রমাণ পেলেই অভিযান শুরুর হুঁশিয়ারি হাসিনা সরকারের

বিদেশমন্ত্রী হাসান মাহমুদ সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, বুয়েটকে জঙ্গিবাদের আখড়ায় পরিণত হতে দেওয়া হবে না।

Radicals at BUET, says Bangladesh foreign minister
Published by: Suchinta Pal Chowdhury
  • Posted:April 2, 2024 6:56 pm
  • Updated:April 2, 2024 6:56 pm

সুকুমার সরকার, ঢাকা: জঙ্গিদের আখড়া হয়ে উঠেছে ঢাকায় অবস্থিত বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় বা বুয়েট (Bangladesh University of Engineering and Technology)। দীর্ঘদিন ধরেই এই অভিযোগ তোলা হচ্ছে। এবার এই নিয়ে কড়া পদক্ষেপ গ্রহণ করতে চলছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার। বিদেশমন্ত্রী হাসান মাহমুদ সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, বুয়েটকে জঙ্গিবাদের আখড়ায় পরিণত হতে দেওয়া হবে না। প্রমাণ পেলেই সরকার উপযুক্ত অ্যাকশন নেবে।  

প্রসঙ্গত, শাসকদলের ছাত্রলিগ ও ইসলামি ছাত্র শিবিরের সংঘাতে ২০১৯ সালের ৭ অক্টোবর বুয়েটের ইলেকট্রিক অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরার ফাহাদ খুন হন। আবরারের বাবা বরকত উল্লাহ বাদী হয়ে রাজধানীর চকবাজার থানায় শাসকদলের ছাত্রসংগঠন বুয়েট শাখার ছাত্রলিগের ১৯ জন নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেছিলেন। সংগঠনের শৃঙ্খলা ভাঙার অভিযোগে সাধারণ সম্পাদক রাসেল-সহ বুয়েট শাখার ১২ নেতা-কর্মীকে বহিষ্কার করে ছাত্রলিগ। ১১ অক্টোবর বুয়েট প্রশাসন ক্যাম্পাসে সব ধরনের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড নিষিদ্ধ করে। ছাত্র রাজনীতি না থাকার সুযোগে সেখানে জেঁকে বসে ইসলামি ছাত্র শিবির। সেই হত্যা মামলায় ২০২১ সালের ৮ ডিসেম্বর আদালত ২০ জনের মৃত্যুদণ্ড ও ৫ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ঘোষণা করে।

[আরও পড়ুন: ইদের বাজার সামাল দিতে ভারত থেকে রাতারাতি এল পিঁয়াজ-আলু, বিএনপির মুখে কুলুপ]

সেই প্রসঙ্গ টেনে বিদেশমন্ত্রী বলেন, বুয়েটে সবসময় ছাত্র রাজনীতি ছিল। দেশের অনেক বরেণ্য রাজনীতিবিদ বুয়েট থেকে পাশ করেছেন। এখানে একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছিল, তার বিচারও হয়েছে। কিন্তু এখন প্রগতিশীল রাজনীতি বন্ধের আড়ালে নিষিদ্ধ জঙ্গিগোষ্ঠী সক্রিয় হয়েছে কি না তা খুঁজে বের করতে হবে। এর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করা হবে। এখন শিক্ষার্থীদের বিপদ থেকে বাঁচাতে সংস্কৃতি চর্চার উপর গুরুত্বও আরোপ করেছেন হাসান মাহমুদ।

অন্যদিকে, ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করার নামে বুয়েটকে জঙ্গি রাজনীতির কারখানায় পরিণত করার প্রমাণ পেলে সরকার ব্যবস্থা নেবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামি লিগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি জানান, “বুয়েটে আবরার হত্যায় কাউকে ছাড় দেওয়া হয়নি। আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা অপকর্ম-অন্যায়ের বিরুদ্ধে, দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করেন। আর সেই নীতিতেই আমরা এগিয়ে চলেছি। আমি রাজনীতি করি, সে জন্য বুয়েটে যেতে পারব না? এটা কোন ধরনের আইন? এটা কোন ধরনের নিয়ম?” কাদের আরও বলেন, “ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করার নামে বুয়েটকে একটা অপরাজনীতি-জঙ্গিবাদের কারখানায় রূপান্তরিত করা হবে, পরিণত করা হবে—এটা যাতে না হয়। আমরা তদন্ত করে দেখছি, এ ধরনের কিছু পাওয়া গেলে সরকার অ্যাকশনে নেবে।”

[আরও পড়ুন: আমেরিকার পর দক্ষিণ আফ্রিকা, ফের বিদেশের মাটিতে খুন বাংলদেশি যুবক!]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ