৫ আশ্বিন  ১৪২৫  শনিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  |  পুজোর বাকি আর ২৪ দিন

মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও রাশিয়ায় মহারণ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুকুমার সরকার, ঢাকা: আরও কাছাকাছি  ভারত ও বাংলাদেশ। দুই দেশের মধ্যে  আরও একটি রেল রুটের উদ্বোধন  হতে চলেছে । শীঘ্রই ভারতের ত্রিপুরার আগরতলা ও বাংলাদেশের আখাউড়ার মধ্যে ট্রেন চলাচল শুরু হবে। 

[জ্বালানি জ্বালা মেটাতে পথে রাহুল, ‘বনধের বন্ধক’ জনতা]   

সোমবার, যৌথভাবে এই প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রকল্পটির সূচনা করবেন দুই রাষ্ট্রপ্রধান। যোগাযোগের দিক থেকে অনেকটাই পিছিয়ে ভারতের উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলি। তাই এই নয়া রেলপথ  ত্রিপুরার জন্য খুশির খবর বলেই মনে করা হচ্ছে। উল্লেখ্য, ২০১২ সালে ভারত ও বাংলাদেশ যৌথভাবে এই রেলপথ নির্মাণে উদ্যোগী হয়। ভারতের দিকে ৫ কিলোমিটার কাজ শেষও হয়েছে। বাংলাদেশে ১০ কিলোমিটার রেলপথ তৈরির কাজ শেষ হলেই দু’দেশের মধ্যে চালু হবে ট্রেন চলাচল। রেলপথটি আখাউড়ার গঙ্গাসাগর পয়েন্ট দিয়ে নিশ্চিন্তপুর হয়ে আগরতলায় যাবে। এ রেলপথ দিয়ে আগরতলা-আখাউড়া হয়ে চট্টগ্রাম-সিলেটের পাশাপাশি ঢাকা-কলকাতাও রেল নেটওয়ার্কের অন্তর্ভুক্ত করা যাবে। ২৪০ কোটি ৯০ লক্ষ টাকা ব্যয় হবে এই প্রকল্পে। কাজ সম্পূর্ণ হতে প্রায় ১৮ মাস সময় লাগবে।   

প্রসঙ্গত, পশ্চিমবঙ্গের সঙ্গে অনেকদিন থেকেই রেলপথে যোগ স্থাপন হয়েছে বাংলাদেশের। দু’দেশের মধ্যে চলছে মৈত্রী এক্সপ্রেস ও কলকাতা-খুলনা বন্ধন এক্সপ্রেস। তবে ট্রেনে তেমন যাত্রী হচ্ছে না. পরিস্থিতি এতটাই খারাপ, যে বন্ধন এক্সপ্রেস বন্ধ হয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা। এবার ত্রিপুরা থেকেও যদি পর্যাপ্ত যাত্রী না পাওয়া যায় সেক্ষেত্রে বড়সড় প্রশ্ন উঠবে প্রকল্পটি নিয়ে।        

[রাজীব হত্যাকারীদের মুক্তির সিদ্ধান্ত তামিলনাড়ু সরকারের, বিরোধিতায় কেন্দ্র]   

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং