Advertisement
Advertisement
Rath Yatra 2024

সতর্কতা সত্ত্বেও দুর্ঘটনা কীভাবে? বাংলাদেশে রথের চূড়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ৫ জনের মৃত্যুতে প্রশ্ন

শহরের রাস্তার উপরে থাকা বৈদ্যুতিক তারের উচ্চতা অনুযায়ী ঠিক কত ফুট উচ্চতায় রথ ওঠানো যাবে, তা নিয়ে আয়োজকদের আগে থেকেই বলা ছিল। কিন্তু তা সতর্কতা সত্ত্বেও ২৫ ফুট উচ্চতায় রথের চূড়া ওঠানো হয় বলে দাবি জেলা প্রশাসকের।

Rath Yatra 2024: At least five lost lives after being electrocuted in Bangladesh
Published by: Sucheta Sengupta
  • Posted:July 8, 2024 9:59 am
  • Updated:July 9, 2024 4:41 pm

সুকুমার সরকার, ঢাকা: রথযাত্রার দিন ভয়ংকর দুর্ঘটনার সাক্ষী রইল বাংলাদেশ। উঁচু রথের চূড়ায় বিদ্যুতের খুঁটিতে আটকে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট (Electrocution) হয়ে ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। জখম অন্তত ৩০। এই ঘটনায় আয়োজকদেরই দুষছে প্রশাসন। বলা হচ্ছে, রথের উচ্চতা কত হবে, তা আগে থেকেই বেঁধে দিয়েছিল প্রশাসন। এ বিষয়ে কড়া সতর্কবার্তাও দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তার পরও কীভাবে উঁচু রথের চূড়ায় এমন দুর্ঘটনা ঘটল? এই প্রশ্ন উঠছে। এনিয়ে রথযাত্রার আয়োজকদেরই দুষছে প্রশাসন।

রবিবার বাংলাদেশের (Bangladesh) বগুড়ার জামতলা এলাকায় রথযাত্রা চলাকালীন উঁচু চূড়াটি আটকে যায় বিদ্যুতের তারের সঙ্গে। তাতে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলে প্রাণ হারান ৫ জন। শহিদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজের পুলিশ ফাঁড়ি ইনচার্জ মহম্মদ আনিসুর রহমান জানান, রথযাত্রায় (Rath Yatra 2024) বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে পাঁচজনের মৃত্যুর পাশাপাশি জখম হয়েছেন অন্তত ৩০ জন। আহতদের মধ্যে কয়েকজনের শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক (Seriously injured)। বগুড়া সদর থানার ওসি সাইহান ওলিউল্লাহ বলেন, মৃতদের মধ্যে তিনজনের পরিচয় পাওয়া গিয়েছে। বাকিদের এখনও পরিচয় মেলেনি।

Advertisement

[আরও পড়ুন: রাজ্যপাল বোসের অভিযোগের জের! বিনীত গোয়েলের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক পদক্ষেপের পথে কেন্দ্র]

বগুড়ার জেলা প্রশাসক মহম্মদ সাইফুল ইসলাম জানান, বছরে দু দফা রথযাত্রা ও উলটো রথযাত্রা বের হয়। শহরের রাস্তার উপরে থাকা বৈদ্যুতিক তারের উচ্চতা অনুযায়ী ঠিক কত ফুট উচ্চতায় রথ ওঠানো যাবে, তা নিয়ে আয়োজকদের আগে থেকেই বলা ছিল। সতর্কও করা হয়েছিল যে মাপে ভুল হলে বড় দুর্ঘটনা (Accident) ঘটতে পারে। কিন্তু প্রশাসনের সেই সতর্কতা সত্ত্বেও ২৫ ফুট উচ্চতায় রথের চূড়া ওঠানো হয়। রথের চূড়া ওঠানো-নামানোর দায়িত্ব ছিল একজনের হাতে। তাঁর ভুলেই ঘটে গেল মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনা, এমনই মনে করছেন জেলা প্রশাসক। তবে এই ব্যক্তিরও মৃত্যু হয়েছে।

Advertisement

[আরও পড়ুন: ন্যায় সংহিতার কোপে মহুয়া, তৃণমূল সাংসদের বিরুদ্ধে FIR দিল্লি পুলিশের]

এদিকে রথযাত্রার আয়োজকদের দাবি, দীর্ঘদিন ধরে বগুড়া শহরে রথযাত্রা ও উলটো রথযাত্রা হয়ে আসছে। আগে কখনও এরকম মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটেনি। গোটা রথযাত্রা অনুষ্ঠান দেখভাল করতে কমিটির পক্ষ থেকে ১০০ জন সেবক নিয়োগ ছিল। সড়কের ওপর বৈদ্যুতিক তারে যাতে রথের স্পর্শ না লাগে, এ জন্য রথের চূড়া ওঠানো-নামানোর জন্য দুজনকে দায়িত্ব দেওয়া ছিল। আমতলা মোড়ে ভুলক্রমে রথের চূড়াটি নিচে নামানোর আগেই বৈদ্যুতিক তারের স্পর্শ লেগে আগুন ধরে যায়। রথে হাত রাখা সকলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন।

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ