৫ আশ্বিন  ১৪২৬  সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুকুমার সরকার, ঢাকা: টাকার বিনিময়ে একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে পাক সেনাকে সাহায্য করেছিল যে সমস্ত বাংলাদেশী, দেশের মানুষের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছিল যারা, এবার সেই রাজাকারদের তালিকা সংগ্রহ করার কাজ শুরু করছে হাসিনা সরকার৷ সূত্রের খবর, সেদেশের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রকের চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে এই কাজ শুরু করতে চলেছে বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। রবিবার মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় কমিটির বৈঠকে এমনটাই জানান হয়েছে৷

[ আরও পড়ুন: বাংলাদেশে গুলির লড়াই, খতম যুব লিগ নেতা হত্যায় জড়িত ২ রোহিঙ্গা ]

বৈঠক শেষে সংশ্লিষ্ট সংসদীয় কমিটির সভাপতি শাজাহান খান বলেন, “আজ মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রকের তরফে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রককে বেতনভোগী রাজাকারদের তালিকা সংগ্রহ করতে বলা হয়েছে৷ এবং শীঘ্রই এর কাজ শুরু হবে।” তিনি জানান, জেলা প্রশাসনের কাছে রাজাকারদের যে তালিকা রয়েছে, তা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রককে সংগ্রহ করতে বলা হয়েছে৷ শাজাহানের মতে, “জেলায় জেলায় রাজাকারদের রেকর্ড সংগ্রহ করে গেজেট আকারে তা প্রকাশ করতে বলা হয়েছে।” তিনি আরও জানান, “এই কাজ কবে শেষ হবে তা নির্ভর করছে ডিসিদের উপর। তারা যত তাড়াতাড়ি কাজ শেষ করতে পারবে, তত দ্রুত তালিকা তৈরি হবে৷”

[ আরও পড়ুন: সততা নেই! তদন্তকারীদের নজরে বাংলাদেশ হাই কোর্টের ৩ বিচারপতি ]

প্রসঙ্গত, ৭১-এর স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় কয়েকটি রাজনৈতিক দল পাক সেনার পক্ষ নিয়েছিল। তার মধ্যে অন্যতম জামাতে ইসলামি, মুসলিম লিগ ও নেজামে ইসলামি। যুদ্ধরত পাক সামরিক বাহিনীকে সহযোগিতা করতে এরা তৈরি করে রাজাকার বাহিনী৷ এরপর রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে বাংলাদেশ স্বাধীনতা লাভ করে৷ এবং প্রায় এক দশক আগে একাত্তরের যুদ্ধাপরাধীদের বিচার শুরু হয়৷ তবে তখন রাজাকারদের তালিকা তৈরির দাবি উঠলেও তা বাস্তবায়িত হয়নি। সূত্রের খবর, মে মাসে সংসদীয় কমিটির বৈঠকের রাজাকারদের তালিকা সংগ্রহের সুপারিশ করা হয়। এবং এবার সেমতোই কাজ শুরু করেছে হাসিনা সরকার৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং