BREAKING NEWS

১৩ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  সোমবার ৩০ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা আতঙ্কের মধ্যেই ধর্মীয় অশান্তি ছড়ানোর চেষ্টা, বাংলাদেশে ধৃত ৬

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: March 29, 2020 4:03 pm|    Updated: March 29, 2020 4:06 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

সুকুমার সরকার, ঢাকা: ধর্ম ও দলমত নির্বিশেষে সারা বিশ্বের মানুষ যখন করোনা ভাইরাস (Corona Virus)-এর বিরুদ্ধে একযোগ লড়াই করছেন। তখনও কিছু ধান্দাবাজ লোক উসকানিমূলক লিফলেট বিলি করে অশান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করছে। যদিও শেষ রক্ষা হয়নি। তাদের হাতেনাতে ধরে জেলে পাঠিয়েছে পুলিশ। শনিবার সন্ধেয় ঘটনাটি ঘটেছে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায়। ধৃতরা হল মহম্মদ আওকাত হোসেন(৫৩), মহম্মদ ফেরদাউস হাসান টিটু (২৫), মহম্মদ তাওহিদুল ইসলাম (২৫), মহম্মদ মুসলিমউদ্দিন (২৩), মহম্মদ মফিজুল ইসলাম (২০) ও মহম্মদ ফরিদ হোসেন (২০)। এছাড়া তাদের সঙ্গে থাকা একটি গাড়িকেও বাজেয়াপ্ত করেছে পুলিশ। ইতিমধ্যে ধৃতদের বিরুদ্ধে শাহবাগ ও রমনা থানায় দুটো মামলা দায়ের হয়েছে।

Bangladeshi leaflet

ধৃতদের কাছে থেকে উদ্ধার হওয়া লিফলেটে লেখা ছিল, ‘মুসলমানদের জন্য করোনা ভাইরাস কোনও আতঙ্কের কারণ নয়, বরং কাফিরদের প্রতি চরম আযাব-গজব।’ প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানিয়েছে, মোট ৩২টি পিকআপ ভ্যানে করে ঢাকা শহরে এই লিফলেট বিতরণ করছিল তারা। সেইসময়ই পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করে।

[আরও পড়ুন: শুনশান রাস্তায় পড়ে বিদেশি যুবক! করোনা আতঙ্কের মাঝে সিলেটে নয়া চাঞ্চল্য ]

এপ্রসঙ্গে ডিএমপির রমনা জোনের সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার এসএম শামিম বলেন, ]পুলিশের একটি টিম শনিবার সন্ধ্যায় মহম্মদ আওকাত হোসনকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের সামনে থেকে লিফলেট বিতরণের সময় হাতেনাতে আটক করে। পরে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বাকি পাঁচজনকে ঢাকার মৌচাক মার্কেটের সামনে থেকে আটক করা হয়। তারা যে লিফলেটে বিলি করেছিল তাতে করোনা ভাইরাস নিয়ে যেসব কথা লেখা আছে যা জনমনে নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে। এছাড়া এগুলি ছোঁয়াচে রোগ বিস্তারের পক্ষে সহায়ক। কারণ, এক পাতার এই লিফলেটে বলা হয়েছে, ‘ছোঁয়াচে বা সংক্রামক রোগ বলতে কিছু নেই। ছোঁয়াচে রোগ বিশ্বাস করা হারাম, কাট্টা কুফরি ও শিরকির অন্তর্ভুক্ত। ধৃতরা ‘রাজারবাগী হুজুর’ নামে এক ব্যক্তির প্ররোচনায় লিফলেট ছড়ানোর এই কাজ করছিল।’

[আরও পড়ুন: লকডাউনের মধ্যে বিয়ের প্রস্তাব, যুবককে পিটিয়ে খুনের অভিযোগ বাংলাদেশে]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement