৪ মাঘ  ১৪২৫  শনিবার ১৯ জানুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফিরে দেখা ২০১৮ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুকুমার সরকার, ঢাকা: বাংলাদেশে একই দিনে হবে ভোটগ্রহণ ও গণনা৷ এমনটাই জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন৷ নিরাপত্তার খাতিরেই এহেন বেনজির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে৷

আগামীকাল বা রবিবার দেশের ২৯৯ আসনে সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টে পর্যন্ত চলবে ভোটগ্রহণ৷ তারপর পোলিং বুথেই শুরু হবে গণনা৷ সন্ধ্যা থেকেই সব আসনে  লাগাতার ফলাফল ঘোষণা চলতে থাকবে। ঢাকার ধানমণ্ডির সিটি কলেজ বুথে নিজের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন আওয়ামি লিগ সভাপতি শেখ হাসিনা। সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন সম্পন্ন করার উদ্দেশ্যে নিরাপত্তা বাহিনীকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা। দেশজুড়ে নিরাপত্তা বাড়িয়ে তুলতে মোতায়েন করা হয়েছে ৬ লক্ষ ৮ হাজার নিরাপত্তারক্ষী। যে কোনও পরিস্থিতি সামাল দিতে প্রস্তুত পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি, আনসার-সহ ও বাংলাদেশের সেনাবাহিনী। জানা গিয়েছে, নির্বাচনের বাহিনীর সংখ্যা হচ্ছে পুলিশ-১ লক্ষ ২১ হাজার, আনসার- ৪ লক্ষ ৪৬ হাজার, সেনাবাহিনী-৪১৪ প্লাটুন, নৌবাহিনী-৪৮ প্লাটুন, কোস্টগার্ড-৪২ প্লাটুন, বিজিবি-১০১৬ প্লাটুন, র‌্যাব-১০ হাজার।কড়া নজর থাকছে সীমান্তবর্তী জেলাগুলির দিকে। গত দু’দিন ধরে রাজধানী-সহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় তল্লাশি অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ।    

এদিকে নির্বাচন কমিশনের নির্দেশ মতে গত শুক্রবার রাত ১২টার পর থেকে ২ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। শনিবার রাত ১২টার পর থেকে ঢাকায় বাস, ট্যাক্সি-সহ সব ধরনের যানবাহন চলাচল নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তবে প্রার্থী, নিরাপত্তা বাহিনী ও স্টিকারযুক্ত যানবাহনের ক্ষেত্রে এই নিষেধাজ্ঞা প্রযোজ্য নয়। সব মিলিয়ে আসন্ন নির্বাচনে কড়া নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছে দেশকে৷  

[‘এই কুফরি নির্বাচন বন্ধ কর’! মেসেজ পাঠিয়ে ঢাকায় নির্বাচন ভবন উড়িয়ে দেওয়ার হুমকি]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং