BREAKING NEWS

২৮ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

বেড়েই চলেছে সংক্রমণ, রাজ্যে করোনায় মৃতের সংখ্যা এক হাজার ছুঁইছুঁই

Published by: Sulaya Singha |    Posted: July 14, 2020 7:31 pm|    Updated: July 14, 2020 7:40 pm

An Images

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লকডাউন পরবর্তী সময়ে দ্বিগুণ নয়, কয়েক গুণ বাড়তে পারে করোনার দাপট। লাফিয়ে বাড়তে পারে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। অনেকদিন আগেই এই আশঙ্কার কথা জানিয়েছিলেন বিজ্ঞানীরা। সেই সঙ্গে এই সময়টাতেই ভাইরাস (Coronavirus) নিয়ে সাধারণ মানুষকে বেশি সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছিলেন। কিন্তু সার্বিকভাবে সেই পরামর্শকে আমল না দেওয়ার ‘ফল’ পাচ্ছে রাজ্য তথা গোটা দেশ। বাংলার ছবিটা গত তিনদিনের তুলনায় সামান্য ভাল হলেও একেবারেই সন্তোষজন নয়। কারণ একদিনে ফের আক্রান্ত হলেন প্রায় ১৪০০ জন।

[আরও পড়ুন: ‘বিধায়কের পকেটে পরে পুলিশ সুইসাইড নোট ঢুকিয়েছে’, বিস্ফোরক অভিযোগ দিলীপের]

মঙ্গলবার রাজ্য স্বাস্থ্যদপ্তরের তরফে জানাোনো হল, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১,৩৯০ জন। যা গতকালের তুলনায় সামান্য কম। তবে এর মধ্যে শুধু কলকাতাতেই একদিনে ৫২৪ জনের শরীরে থাবা বসিয়েছে ভাইরাস। রাজ্যে মোট আক্রান্ত বেড়ে দাঁড়াল ৩২ হাজার ৮৩৮-এ। লাফিয়ে বাড়ছে অ্যাকটিভ কেসও। বর্তমানে কোভিড পজিটিভ সংখ্যাটা ১১ হাজার ৯২৭। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুও। স্বাস্থ্যদপ্তরের বুলেটিন অনুযায়ী, একদিনে করোনার বলি ২৪ জন। তিলোত্তমাতেই শুধু প্রাণ হারিয়েছেন ৭ জন। এখনও পর্যন্ত রাজ্যে এই মারণ ভাইরাস কেড়ে নিয়েছে ৯৮০ জনের প্রাণ।

চিন্তার ভাঁজ চওড়া করেছে সুস্থতার নিম্নমুখী হারও। একটা সময় যেখানে সুস্থতার হার প্রায় ৬৭ শতাংশে পৌঁছে গিয়েছিল, সেখানে এখন রাজ্যে সেই হার ৬০.৬৯ শতাংশ। বর্তমানে করোনাজয়ীর থেকে আক্রান্তর সংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ। এদিনের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাকে হারিয়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৭১৮ জন। যার মধ্যে কলকাতায় সুস্থ ১৯৯ জন। এখনও পর্যন্ত বাংলার মোট করোনাযোদ্ধা ১৯ হাজার ৯৩১ জন। তবে দ্রুত করোনা রোগী চিহ্নিতকরণের প্রক্রিয়াও চলছে সমান তালে। গত ২৪ ঘণ্টায় ১১ হাজার ১০২টি নমুনা টেস্ট হয়েছে। এখনও পর্যন্ত রাজ্যে ৬ লক্ষ ৩৮ হাজার ৫৪০টি স্যাম্পেল টেস্ট করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: মুখে নয়, গলার কাছে মাস্ক! ওঠবোস করিয়ে পথচারীদের শাস্তি দিলেন পুরুলিয়ার জেলাশাসক]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement