BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ফের প্রকাশ্যে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব, তৃণমূল নেতাকে খুনের সুপারি দেওয়ার অভিযোগ উপপ্রধানের বিরুদ্ধে!

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: August 16, 2020 8:49 am|    Updated: August 16, 2020 8:49 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের ক্যানিংয়ে (Canning) প্রকাশ্যে তৃণমূলের গোষ্ঠীকোন্দল। এবার তৃণমূল নেতাকে খুনের সুপারি দেওয়ার অভিযোগ উঠল খোদ উপপ্রধানের বিরুদ্ধে। যদিও নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ মানতে নারাজ উপপ্রধান। উলটে গোটা ঘটনার পিছনে বিজেপির হাত রয়েছে বলেই দাবি তাঁর।

ঘটনার সূত্রপাত শনিবার রাত ২ টো নাগাদ। জানা গিয়েছে, ওই সময়ই দক্ষিণ ২৪ পরগনার (South 24 Pargana) ক্যানিংয়ের ইটখোলার যুব সভাপতি ইন্দ্রজিৎ সর্দারের উপর চড়াও হয় দুই দুষ্কতী। আগ্নেয়াস্ত্র ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে ইন্দ্রজিৎ বাবুকে আক্রমণ করে দুলাল মণ্ডল ও পার্বতী কয়াল নামে ওই দু’জন। ঘটনাচক্রে বিষয়টি গ্রামবাসীদের চোখে পড়তেই ওই দুই দুষ্কতীকে ধরে ফেলে তাঁরা। দীর্ঘক্ষণ তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদের পর তুলে দেওয়া হয় পুলিশের হাতে। গ্রামবাসীদের দাবি, চাপের মুখে অভিযুক্তরা জানিয়েছে, ইটখোলার উপপ্রধান খতিব সর্দারই ইন্দ্রজিৎকে খুনের জন্য তাদের সুপারি দিয়েছিলেন।

GOONS

[আরও পড়ুন: ইলিশ ধরে মোহনায় ফেরার পথে বিপত্তি, জম্বুদ্বীপের কাছে ট্রলার উলটে নিখোঁজ ৩ মৎস্যজীবী]

দুই অভিযুক্তের বয়ানে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে এলাকা। অভিযুক্তদের শাস্তির দাবিতে সরব হয়েছেন স্থানীয়রা। যদিও এই ঘটনার সঙ্গে নিজের কোনও যোগ নেই বলেই দাবি উপপ্রধান খতিব সর্দারের। তাঁর কথায়, ‘গোটা ঘটনার ‘মাথা’ বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের কর্মীরাই তৃণমূলের নাম ভাঁড়িয়ে অপরাধমূলক কাজ করে চলেছে এলাকায়।’ এ বিষয়ে পুলিশ জানিয়েছে যে, অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জেরা করা হচ্ছে। ঘটনার সঙ্গে আদৌ উপপ্রধানের কোনও যোগ রয়েছে, নাকি পুরোটাই পরিকল্পনামাফিক, তা শীঘ্রই প্রকাশ্যে আসবে।

[আরও পড়ুন: চোর সন্দেহে নাবালককে লোহার শিকল দিয়ে বেধড়ক মার, নাম জড়াল তৃণমূল নেতার]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement