BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

৬ টি কুকুরছানাকে বস্তায় ভরে ফেলা হল ভাগাড়ে! লিলুয়ার ঘটনায় ক্ষোভে ফুঁসছেন পশুপ্রেমীরা

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: November 21, 2021 4:47 pm|    Updated: November 21, 2021 5:09 pm

6 puppies were stuffed into bag, police rescued them | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী।

অরিজিৎ গুপ্ত, হাওড়া: ফের নৃশংসতার শিকার কুকুরছানা। বস্তায় ভরে ৬ টি কুকুরছানাকে ভাগাড়ে ফেলে এলেন তরুণী। তাকে সাহায্য করলেন এক ব্যক্তি। ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়ার (Howrah) লিলুয়ায়।

সম্প্রতি প্রকাশ্যে আসে হাওড়ার লিলুয়ার একটি ভিডিও। সেখানে দেখা যায়, কাশীনাথ রায় নামে এক ব্যক্তি বাড়ির সামনের রাস্তায় দাঁড়িয়ে। তাঁর হাতে বস্তা। এরপর দেখা গেল, একে একে ছ’টি কুকুর ছানাকে বস্তায় ভরলেন তিনি। বেঁধে দিলেন বস্তার মুখ। পাশে স্কুটিতে অপেক্ষা করেছিলেন শান্তা দাস নামে এক তরুণী। বস্তাটি স্কুটিতে তুলে দিতেই তিনি চলে গেলেন। এই ভিডিওটি প্রকাশ্যে আসতেই নড়ে চড়ে বসে লিলুয়া থানার পুলিশ। তারপরই প্রকাশ্যে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য।

[আরও পডুন: তৃণমূলে যোগ শিক্ষক নেতা মইদুল ইসলামের, ঘাসফুল শিবিরে বিষপানকারী ৫ শিক্ষিকাও]

জানা গিয়েছে, যে ব্যক্তি কুকুরছানাগুলিকে বস্তায় ভরেছিলেন তাঁর দাবি, কুকুরগুলি বাড়ির সামনের এলাকা নোংরা করত। সেই কারণেই তাদের বস্তাবন্দি করে বেলগাছিয়া ভাগাড়ে ফেলে আসার ব্যবস্থা করা হয়। কাশীনাথ রায়ের থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ভাগাড়ে যেতেই হদিশ মেলে কুকুরছানাগুলির। উদ্ধারও করা হয়েছে। 

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়েছে এলাকায়। অভিযুক্তদের কঠোরতম শাস্তির দাবি জানিয়েছেন পশুপ্রেমীরা। উল্লেখ্য, এহেন ঘটনা প্রথম নয়, প্রায়ই কুকুরছানাদের হেনস্তা, তাদের বিষ খাইয়ে খুনের চেষ্টার অভিযোগ ওঠে। গত বুধবার সকালে কলকাতার রামধন খান লেনে রাস্তার পাশেই ৫টি কুকুরছানাকে পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। কাছে যেতেই বোঝা যায় যে সেগুলির মৃত্যু হয়েছে। এক সঙ্গে ৫টি কুকুরছানার মৃত্যুতে স্বাভাবিকভাবেই তীব্র উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। সেক্ষেত্রেও পরিকল্পনামাফিক বিষ খাইয়ে খুনের অভিযোগ উঠেছে।

[আরও পডুন: স্কুলছুটদের বিদ্যালয়ে ফেরানোর স্বীকৃতি, মুর্শিদাবাদের পড়ুয়াকে ‘বীরপুরুষ’ সম্মান রাজ্যের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে