১৯  আষাঢ়  ১৪২৯  মঙ্গলবার ৫ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

সবুজ সাথীর সৌজন্যে দেশের সেরা বাংলা, ৭৯% পরিবারই সাইকেলের মালিক

Published by: Paramita Paul |    Posted: May 16, 2022 7:53 pm|    Updated: May 16, 2022 7:59 pm

78.9 percent families own cycle in Bengal highest in India | Sangbad Pratidin

গৌতম ব্রহ্ম: রাজ্য সরকারের প্রকল্পের ফের সুফল পেল বঙ্গবাসী। পরিসংখ্যান বলছে, বাংলার (Bengal) ৭৮.৯ শতাংশ পরিবারে অন্তত একটি করে সাইকেল (Cycle) রয়েছে। যা সারা দেশের নিরিখে সর্বাধিক। এই হার সার্বিকভাবে দেশের হার (৫০.৪ শতাংশ)-এর থেকে অনেকটাই বেশি।

প্রত্যন্ত গ্রামে যেখানে গণপরিবহণ এখনও পৌঁছায়নি। সেখানকার বাসিন্দাদের যাতায়াতের মাধ্যম এখনও দু’চাকার এই যান। শুধু গ্রাম-গঞ্জ নয়, পরিবেশবান্ধব হওয়ায় নিউটাউনের মতো এলাকাতেও ক্রমশ জনপ্রিয়তা বাড়ছে সাইকেলের। সেখানকার রাস্তাগুলিতে তো আলাদাভাবে সাইকেল ওয়ে বানানো হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: এবার নাইট শিবিরে ধাক্কা, চোটের জন্য আইপিএল থেকে ছিটকে গেলেন রাহানে]

পরিসংখ্যান বলছে, উত্তরপ্রদেশে সাইকেল রয়েছে ৭৫.৬ শতাংশ পরিবারে। ৭২.৫ শতাংশ পরিবারে সাইকেল রয়েছে ওড়িশায়। ছত্তিশগড়ে ৭০.৮ শতাংশ, অসমে ৭০.৩ শতাংশ পরিবারে সাইকেল অন্যতম বাহন হিসেবে ব্যবহার করা হয়। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের নিজের রাজ্য গুজরাটে সাইকেল ব্যবহারকারী সেখানে মাত্র ২৯.৯ শতাংশ।

নবান্ন সূত্রের খবর, বাংলার ৭৯ শতাংশ পরিবারে সাইকেল থাকার নেপথ্যে মুখ্যমন্ত্রীর স্বপ্নের প্রকল্প ‘সবুজ সাথী’। ওই প্রকল্পে নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রছাত্রীদের সাইকেল দেওয়া হয়। ২০১৫ সালে চালু হয় এই ‘সবুজ সাথী’ প্রকল্প। এই প্রকল্পে ছাত্রছাত্রীদের স্কুলে যাতায়াত যেমন সহজ হয়েছে তেমনই দূষণমুক্ত যানের প্রসার ঘটেছে। সেই কারণে কেন্দ্রীয় সরকার এবং আন্তর্জাতিক বহু প্রতিষ্ঠান এই প্রকল্পের জন্য রাজ্য সরকারের প্রসংশা করেছে। ২০১৫ থেকে দফায় দফায় ‘সবুথ সাথী’ প্রকল্পে এখনও পর্যন্ত এক কোটির কিছু বেশি সাইকেল বিতরণ করা হয়েছে বলেও জানানো হয়েছে।যা প্রত্যন্ত এলাকা থেকে শহরের বহু মানুষের যাতায়াতের সমস্যার সুরাহা করেছে।

[আরও পড়ুন: সাইমন্ডসের দেহ আগলে বসেছিল পোষ্য সারমেয়, তারকাকে বাঁচানোর চেষ্টা করেন প্রত্যক্ষদর্শীও]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে