BREAKING NEWS

১৯ আষাঢ়  ১৪২৭  শনিবার ৪ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

বোমায় নিহত বিজেপি কর্মী, ফের উত্তপ্ত লাভপুর

Published by: Sayani Sen |    Posted: August 18, 2019 10:09 am|    Updated: August 18, 2019 10:09 am

An Images

ভাস্কর মুখোপাধ্যায়, বোলপুর: ফের উত্তপ্ত লাভপুর। এবার মীরবাঁধ গ্রামে নিজের বাড়ির সামনেই বোমার আঘাতে খুন হলেন বিজেপি কর্মী হিল্লোল ওরফে ডলু শেখ (৪৮)। গেরুয়া শিবিরের অভিযোগ, এই  ঘটনার সঙ্গে যোগ রয়েছে তৃণমূলের৷ যদিও শাসকদলের তরফে অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে৷ ডলু আদতে দুষ্কৃতী ছিল বলে তার এমন মর্মান্তিক পরিণতি হয়েছে বলে পালটা দাবি ঘাসফুল শিবিরের৷  

[আরও পড়ুন: নিম্নচাপের শক্তিবৃদ্ধিতে দিনভর ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা, নবান্নে চালু হেল্পলাইন নম্বর]

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ডলু শেখের বাড়ি দাঁড়কা পঞ্চায়েতের মীরবাঁধ গ্রামের হাইস্কুল পাড়ায়। প্রতিদিনের মতো শনিবার রাত সাড়ে আটটা নাগাদ গ্রামের কয়েকজন ঘনিষ্ঠের সঙ্গে গল্পগুজব করে বাড়ি ফিরছিলেন তিনি। বাড়িতে ঢোকার মুখে চার-পাঁচজন দুষ্কৃতী তাঁকে লক্ষ্য করে পরপর বেশ কয়েকটি বোমা ছোঁড়ে। ডলু ছুটে পালাতে গেলে তাঁর মাথার ঠিক পিছন দিকেই একটি বোমা ফাটে। বোমার আঘাতে তাঁর মাথার পিছনের অংশ সম্পূর্ণ উড়ে যায়৷ বোমার শব্দ এবং ডলুর আর্তনাদে বাড়ি থেকে বেরিয়ে আসেন পরিজনেরা৷ ডলুর ছিন্নবিচ্ছিন্ন দেহ উদ্ধার করেন তাঁরা৷

খবর পেয়ে লাভপুর থানার পুলিশও ঘটনাস্থলে পৌঁছায়৷ নিহত বিজেপি কর্মীর দেহ উদ্ধার করতে যান পুলিশকর্মীরা৷ তবে নিহতের পরিজনেরা দেহ উদ্ধারে বাধা দেন৷ তাদের তাণ্ডবে দীর্ঘক্ষণ গ্রামে ঢুকতে পারেনি লাভপুর থানার পুলিশ। মৃতদেহটি অনেকক্ষণ রাস্তায় পড়ে থাকে। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে লাঠিচার্জ করে পুলিশ৷ যদিও পুলিশ এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে৷ তবে পরে পুলিশ গ্রামে ঢুকে দেহটি উদ্ধার করে। 

BJP-worker

[আরও পড়ুন: আইন ভঙ্গকারীকেই ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণের দায়িত্ব, সচেতনতা ফেরাতে নয়া উদ্যোগ পুলিশের]

লোকসভা ভোটের সময় ডলু সিপিএম থেকে বিজেপিতে যোগ দেন। মীরবাঁধ-সহ আশেপাশের গ্রামগুলিতে তাঁর নেতৃত্বে বিজেপি সংগঠন মজবুত করেছিল। লাভপুরের বিজেপি ব্লক সভাপতি সুবীর মণ্ডল বলেন, “তাঁকে পরিকল্পনা করেই বোমা মেরে তৃণমূল খুন করেছে।” তৃণমূল যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছে৷ লাভপুর ব্লক তৃণমূল সভাপতি তরুণ চক্রবর্তী বলেন, ‘‘এই ঘটনার সঙ্গে তৃনমূলের কেউ যুক্ত নয়। পুলিশ পুরো ঘটনার তদন্ত করে দেখুক।’’

 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement