৫ আশ্বিন  ১৪২৬  সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

শংকরকুমার রায়, রায়গঞ্জ: মহিলা কর্মচারীকে অশালীন প্রস্তাব দেওয়ার অভিযোগে দোকানে ভাঙচুর চালাল নিগৃহীতার পরিবার ও পরিজনেরা। মঙ্গলবার দুপুরে চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটে উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জের উকিলপাড়া এলাকায়। পরে রায়গঞ্জ থানার পুলিশের উপস্থিতিতে স্বাভাবিক হয় পরিস্থিতি। ইতিমধ্যেই নিগৃহীতার পরিবারের তরফে রায়গঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। শুরু হয়েছে তদন্ত।

[আরও পড়ুন:দেশরক্ষার স্বীকৃতিতে জাতীয় পুরস্কার, গ্রামে ফিরে আবেগতাড়িত নদিয়ার জওয়ান]

জানা গিয়েছে, বছর তিনেক আগে উকিলপাড়া এলাকায় প্রসাধনী সামগ্রীর দোকান খোলেন কমল সরকার নামে এক ব্যক্তি। সেই দোকানে দুই মহিলা কর্মচারী ছিলেন। কয়েকদিন আগে রায়গঞ্জের শক্তিনগরের বাসিন্দা এক যুবতী তাঁর মায়ের সঙ্গে ওই প্রসাধনী সামগ্রীর দোকানে যান একটি কাজের খোঁজে। তাঁদের কথা শুনে যুবতীকে কাজও দেন কমল সরকার। অভিযোগ, কাজ দেওয়ার পর থেকেই যুবতীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা বাড়ানোর চেষ্টা করেন দোকান মালিক। এমনকী গভীর রাতে ওই যুবতীকে তিনি ভিডিও কল করতেন বলেও অভিযোগ। নাগালের বাইরে চলে গেলে গোটা বিষয়টি বাড়িতে জানান ওই যুবতী। এরপর মঙ্গলবার দোকানে চড়াও হয় ওই যুবতীর পরিবারের সদস্য ও প্রতিবেশীরা। ভাঙচুর চালানো হয় দোকানে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি আয়ত্তে আনে। জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যেই গোটা ঘটনাটি জানিয়ে রায়গঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে নিগৃহীতার পরিবার।

যদিও নিজের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ ভিত্তিহীন বলেই দাবি করেছেন কমলবাবু। তার পালটা অভিযোগ, ওই যুবতীই অশালীন প্রস্তাব দিত তাঁকে। অভিযুক্তের মায়ের দাবি, ওই যুবতী একাধিকবার বিয়ের জন্য ওই ব্যক্তির উপর চাপ সৃষ্টি করেছিলেন। কিন্তু কমলবাবু স্পষ্টভাবে জানান, তার পক্ষে সম্ভব নয়। সেই আক্রোশের বশেই কমলের বিরুদ্ধে এহেন অভিযোগ আনা হচ্ছে৷  দু’পক্ষের অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলেই জানায় পুলিশ। 

[আরও পড়ুন:পরকীয়ায় বাধা, স্ত্রী ও সন্তানকে খুনের চেষ্টার অভিযোগে গ্রেপ্তার বিজেপি নেতা\

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং