Advertisement
Advertisement

Breaking News

Canning

অস্ত্রোপচার ছাড়াই শিশুর গলায় আটকে থাকা ব্লেড বের করে নজির ক্যানিং হাসপাতালের

বর্তমানে সম্পূর্ণ বিপন্মুক্ত ওই খুদে।

A doctor of Canning Hospital removed blade from a toddler's neck without surgery | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী

Published by: Tiyasha Sarkar
  • Posted:May 10, 2021 4:26 pm
  • Updated:May 10, 2021 4:26 pm

দেবব্রত মণ্ডল, বারুইপুর: দশমাসের শিশুর গলায় আটকেছিল ধারালো ব্লেড। অস্ত্রোপচার ছাড়াই তা বের করে নজির গড়ল ক্যানিং হাসপাতাল। এখন সম্পূর্ণ বিপন্মুক্ত ওই খুদে। তবে এখনও হাসপাতালেই রয়েছে সে। 

হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, ক্যানিংয়ের ইটখোলা এলাকার বাসিন্দা দশ মাসের নামিয়া ঘরামি। খেলতে খেলতে একটি ব্লেড মুখে নিয়েছিল সে। বাড়ির লোক কিছু বুঝে ওঠার আগেই খুদে তা গিলে ফেলে। মুখ থেকে রক্ত বের হতে শুরু করে। পরিস্থিতি বেগতিক বুঝে ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় শিশুটিকে। তখন জরুরি বিভাগের দায়িত্বে ছিলেন নাক-কান-গলা বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক বিকাশ সিংহ। সঙ্গে সঙ্গে এক্স-রে করানোর পরামর্শ দেন তিনি। দেখা যায়, শ্বাসনালীর একেবারে শেষ প্রান্তের  ডান দিকে আটকে রয়েছে ব্লেডটি। বেশ কিছুক্ষণ শরীরের মধ্যে ব্লেড আটকে থাকায় অসুস্থ হয়ে পড়ে শিশুটি। তড়িঘড়ি ওই চিকিৎসক অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যায় খুদেকে। অস্ত্রোপচার ছাড়াই ব্লেডটি বের করে আনেন তিনি। বর্তমানে শিশুটি ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

Advertisement

[আরও পড়ুন: মমতার তৃতীয় মন্ত্রিসভায় উত্তরবঙ্গের তিন নতুন মুখ, দায়িত্ব পেলেন পরেশ-বিপ্লব-বুলুচিক]

এ বিষয়ে নাক-কান-গলার চিকিৎসক বিকাশ সিং বলেন, “এই কোভিড পরিস্থিতিতে ক্যানিং থেকে কলকাতা পাঠালে শিশুটি নিয়ে বাবা-মাকে অনেক ভোগান্তির মধ্যে পড়তে হতো। ঝুঁকি নিয়ে এই কাজটি আমরা সম্পন্ন করলাম। বর্তমানে শিশুটি সুস্থ আছে। এসফাগোস্কপি (Esophagoscopy) ব্যবহার করে শিশুটির বুকের কাছ থেকে ব্লেড টি বের করে আনা সম্ভব হয়েছে। যদি ব্লেড টির গোটা অংশই থাকতো তাহলে বের করা খুব কঠিন হয়ে যেত ।”

Advertisement

[আরও পড়ুন: মানবিক উদ্যোগ, বিনাপয়সায় করোনা আক্রান্তের বাড়ি খাবার ও ওষুধ পৌঁছে দিচ্ছেন বারাসতের মা-মেয়ে]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ