১৩ মাঘ  ১৪২৬  সোমবার ২৭ জানুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১৩ মাঘ  ১৪২৬  সোমবার ২৭ জানুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

শান্তনু কর, জলপাইগুড়ি: ফের এনআরসি আতঙ্কে রাজ্যে মৃত্যু। জলপাইগুড়িতে আত্মঘাতী এক লোকসংগীত শিল্পী। আজ সকালে এলাকার একটি কাঁঠাল গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার হয়েছে বছর সত্তরের ওই শিল্পীর দেহ। মৃত মহম্মদ শাহাবুদ্দিন পালাটিয়া ও মুর্শিয়া গানের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। পরিবারের দাবি, কয়েকদিন ধরে তিনি এনআরসি নিয়ে আতঙ্কে ভুগছিলেন। প্রয়োজনীয় নথিপত্র জোগাড় করতে ব্যস্ত ছিলেন। সেই আশঙ্কা থেকেই মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি পরিবারের।

JPG-singer
সময় যত যাচ্ছে, ততই এনআরসি নিয়ে সোচ্চার হচ্ছেন বিজেপি নেতা থেকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। অসমের পর দেশজুড়ে হবে এনআরসি, অমিত শাহ থেকে রাজনাথ সিং – একের পর এক মন্ত্রীর এই ঘোষণা আতঙ্ক বাড়ছে রাজ্যের সীমান্তবর্তী জেলাগুলিতে। তারউপর আবার সম্প্রতি সংসদে এনআরসি প্রস্তাব পেশ করার তোড়জোড় চলছে। সোমবার লোকসভায় তা পেশ হবে।

[আরও পড়ুন: স্ক্রাব টাইফাসে বহরমপুরে মৃত্যু কিশোরীর, নার্সিংহোমে বিক্ষোভ পরিবারের]

প্রস্তাব অনুযায়ী, ২০১৪র আগে পাকিস্তান, আফগানিস্তান, বাংলাদেশ থেকে অমুসলিম শরণার্থীরা বিপাকে পড়ে ভারতে আশ্রয় নিয়েছে, তাঁদের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। এসব ঘোষণার পর থেকেই সীমান্ত এলাকার মানুষজন প্রয়োজনীয় নথিপত্র সংগ্রহ করতে তৎপর হয়ে উঠেছেন। কারণ, অসমে এনআরসি-তে বাদ পড়া ১৯ লক্ষের মধ্যে ১২ লক্ষ হিন্দু, এই তথ্য তাঁদের আরও চিন্তিত করে তুলেছে। যদিও রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বারবারই আশ্বস্ত করেছেন যে অযথা যেন কেউ চিন্তা না করেন। কেউ বাদ পড়বেন না। তারপরও ভয় কাটছে না।
জলপাইগুড়ির বাহাদুরের পাখিধরার বাসিন্দা বছর সত্তরে মহম্মদ শাহাবুদ্দিন। তিনি পেশায় পালাটিয়া এবং মুর্শিয়া গানের শিল্পী। পরিবার সূত্রে খবর, সম্প্রতি এনআরসি নিয়ে এতরকমের আলোচনা, কথাবার্তা শুনে চিন্তিত হয়ে পড়ছিলেন। নিজের নথিপত্র জোগাড় করার চেষ্টা করছিলেন। মাঝেমধ্যেই সকলের কাছে এই চিন্তা প্রকাশ করছিলেন যে নাগরিক হিসেবে নিজেদের যথাযথ প্রমাণপত্র দিতে পারবেন কি না। পরিবারের দাবি, সেই চিন্তা থেকেই তিনি আত্মঘাতী হয়েছে। গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় বৃহস্পতিবার তাঁর দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। শোকগ্রস্ত পরিবারের সদস্যরা।

[আরও পড়ুন: ম্যানগ্রোভ কেটে তৈরি হচ্ছে ভেড়ি, প্রতিবাদ করায় হুমকির মুখে গ্রামবাসীরা]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং