Advertisement
Advertisement

পিএনবি কেলেঙ্কারির জের, রাতারাতি দোকানের নাম পালটালেন স্বর্ণ ব্যবসায়ী

ইডি হানার আশঙ্কায়ই কি নামবদল?

A gold Merchant changes his shop name in Siliguri
Published by: Sangbad Pratidin Digital
  • Posted:February 21, 2018 9:32 pm
  • Updated:February 21, 2018 9:32 pm

সংগ্রাম সিংহরায়, শিলিগুড়ি: পিএনবি কেলেঙ্কারির জের। রাতারাতি দোকানের নামই পালটে ফেললেন শিলিগুড়ির এক স্বর্ণ ব্যবসায়ী। মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত দোকানের নাম ছিল ‘গীতাঞ্জলি জুয়েলস’।  কিন্তু, বুধবার সকালে দেখা যায়, দোকানে নতুন বোর্ড লাগানো হয়েছে। বোর্ডে দোকানের নাম লেখা রয়েছে ‘পেরিওয়াল জেমস’। শোনা যাচ্ছে, ইডি হানার আশঙ্কাতেই নাকি দোকানে নামবদল। যদিও ওই সোনার দোকানের মালিক নরেশ পেরিওয়ালের দাবি, পিএনবি কাণ্ডের পর তিনি নিজেই গীতাঞ্জলির ব্র্যান্ডের সঙ্গে সব সম্পর্ক ছিন্ন করে দিয়েছেন। আর যেহেতু তাঁর সঙ্গে গীতাঞ্জলির আর কোনও ব্যবসায়িক সম্পর্ক নেই, তাই দোকানের নামটি পালটে ফেলেছেন।

[বেতন দিতে অপারগ, কর্মীদের অন্য চাকরি খোঁজার পরামর্শ নীরব মোদির]

Advertisement

দোকান মালিক নরেশ পেরিওয়াল মাড়োয়ারি। বছর দশেক আগে গয়না প্রস্তুতকারক সংস্থা গীতাঞ্জলির ফ্র্যাঞ্চাইজি শিলিগুড়িতে ব্যবসা শুরু করেছিলেন তিনি। বিধান রোডে নরেশ পেরিওয়ালের দোকানটি শহরের অন্যতম বড় সোনার দোকান বলেই পরিচিত। এক সময়ে শুধু গীতাঞ্জলি সংস্থার গয়না ওই দোকানে পাওয়া যেত। তবে কয়েক বছর ধরে অন্য ব্র্যান্ডের গয়নাও নরেশ পেরিওয়াল বিক্রি করছেন বলে জানা গিয়েছে। এখন পিএনবি কেলেঙ্কারিতে নাম জড়িয়েছে ধনকুবের নীরব মোদি ও তাঁর মামা মেহুল চোখসির। এই মেহুল চোখসিই আবার গয়না প্রস্তুতকারক সংস্থা গীতাঞ্জলির মালিক। ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসার পর থেকে ফেরার মামা ও ভাগ্নে। কলকাতা, নিউটাউন, সল্টলেক-সহ রাজ্যের নানা প্রান্তে গীতাঞ্জলির শো রুমে তল্লাশি শুরু করেছেন ইডি আধিকারিকরাও। দুর্গাপুরেও একটি শো রুমে তল্লাশি হয়েছে। গয়না বাজেয়াপ্ত করে বেশিরভাগ শো রুমেই তালা ঝুলিয়ে দিয়েছেন তদন্তকারীরা।

Advertisement

[‘মেয়েটা এতক্ষণ পড়ে থাকল, কেন জানতে পারলেন না?’, আইসিকে ভর্ৎসনা মুখ্যমন্ত্রীর]

এই পরিস্থিতিতে শিলিগুড়ির বিধান রোডে শহরের অন্যতম বড় ওই সোনার দোকানটির নামও রাতারাতি পালটে গেল। গীতাঞ্জলি জুয়েলসের পরিবর্তে দোকান নাম রাখা হল পেরিওয়াল জেমস। স্বাভাবিকভাবে গুঞ্জন ওঠেছে, ইডির হানার আশঙ্কায় দোকানের নাম বদলে ফেলেছেন স্বর্ণ ব্যবসায়ী। যদিও আদপেই তেমনটা নয় বলে দাবি দোকান মালিকের। নরেশ পেরিওয়ালের বক্তব্য, পিএনবি কাণ্ডের পর তিনি নিজেই গীতাঞ্জলি ব্র্যান্ডের সঙ্গে সব সম্পর্ক ছিন্ন করে দিয়েছেন। আর যেহেতু তাঁর সঙ্গে গীতাঞ্জলির আর কোনও ব্যবসায়িক সম্পর্ক নেই, তাই দোকানের নামটি পালটে ফেলেছেন।

[দুই নদীর মাঝে কোদোপালে সবুজের হাতছানি, সাঁকরাইলে পর্যটনের নয়া দিগন্ত  ]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ