৪ কার্তিক  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২২ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

বিপ্লবচন্দ্র দত্ত, কৃষ্ণনগর:  রাতের অন্ধকারে দুই স্বর্ণ ব্যবসায়ীর গাড়ি লক্ষ্য করে গুলি চালাল দুষ্কৃতীরা৷ লুট করা হল সোনাদানা ও নগদ অর্থ৷ কোনও হতাহতের ঘটনা না ঘটলেও, মঙ্গলবার রাত থেকে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়ায় নদিয়ার চাপড়া থানার ন’মাইল এলাকার কাছে কৃষ্ণনগর-করিমপুর রোডে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে চাপড়া থানার পুলিশ। শুরু হয় তদন্ত৷ ইতিমধ্যে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে৷

[ আরও পড়ুন: টোটোর বদলে ই-রিকশা, চালকদের লাইসেন্সে উল্লেখ থাকবে রুটও ]

জানা গিয়েছে, রাজু ঘোষ ও সুজয় দে নামে ওই দুই স্বর্ণ ব্যবসায়ীর বাড়ি উত্তর ২৪ পরগনার নৈহাটিতে। ব্যবসার কাজে সেরে ব্যক্তিগত গাড়ি করে নদিয়ার করিমপুর থেকে চাপড়ায় ফিরছিলেন তাঁরা৷ চাপড়ার রথতলার একটি সোনার দোকানে কাজ সেরে যখন কৃষ্ণনগরের দিকে আসছিলেন, তখনই তাঁদের গাড়ির উপর হামলা চালায় একদল দুষ্কৃতী। চাপড়া ন’মাইলের কাছে  গাড়ি আটকানো হয়৷ প্রথমে দুই ব্যবসায়ীকে গাড়ি থেকে নামতে বলা হয়৷ নামতে অস্বীকার করলে, গাড়ি লক্ষ্য করে দুষ্কৃতীরা গুলি চালায় বলে অভিযোগ।  গুলির আঘাতে ফুটো হয়ে যায় গাড়ির কাঁচে। চলে লুটপাঠও। 

[ আরও পড়ুন: পণের দাবিতে ‘অত্যাচারিত’, বালুরঘাটে শ্বশুরবাড়ির সামনে ধরনায় গৃহবধূ ]

পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার খবর পাওয়া মাত্রই সেখানে পৌঁছন তাঁরা৷ দুই স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে উদ্ধার করা হয়। তাদের কাছ থেকে সম্পূর্ণ ঘটনার বিবরণ শুনে ডাকাতির অভিযোগ দায়ের হয়৷ তবে এই ঘটনায় প্রথমে ব্যবসায়ীদের গাড়ির চালক সঞ্জয় প্রসাদকে প্রথমে সন্দেহ করছিলেন তদন্তকারীরা৷ কারণ, ঘটনার পর থেকেই নিখোঁজ ছিলেন তিনি৷ কিন্তু পরে তিনিও ফিরে আসেন৷

জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার গভীর রাতে চাপড়া থানা এলাকার বাসিন্দা হালিম শেখ নামে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে৷ তাঁকে জেরা করে লুটের বিষয়ে অনেক তথ্য পাওয়া গিয়েছে৷ প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ নিশ্চিত, ওই দুই স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের কাছে যে সোনা রয়েছে, সেই সম্পর্কে দুষ্কৃতীদের কেউ আগাম খবর দিয়েছিল। তদন্তের স্বার্থে পুলিশ স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের গাড়িচালককেও জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারে৷ জেলা পুলিশের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ‘‘তদন্ত অনেকটাই এগিয়েছে। খুব শীঘ্রই সমস্ত দুষ্কৃতীদের পাকড়াও করা হবে। উদ্ধার করা সম্ভব হবে সমস্ত সোনা।’’

ছবি: সঞ্জিত ঘোষ

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং