BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

গায়ের রং কালো! গৃহবধূকে পিটিয়ে ‘খুন’ করল শ্বশুরবাড়ির লোকজন

Published by: Sayani Sen |    Posted: August 16, 2020 5:31 pm|    Updated: August 16, 2020 5:31 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বর্ণভেদ আর নেই। সমাজ এগিয়ে গিয়েছে। কিন্তু প্রকৃত অর্থে কী এগোতে পেরেছি আমরা? আরও একবার বর্তমান সমাজের দিকে সেই প্রশ্নই ছুঁড়ে গিলে কুলতলির গোপালগঞ্জের হাড়হিম করা ঘটনা। অভিযোগ, শুধুমাত্র গায়ের রং কালো হওয়ায় গৃহবধূকে পিটিয়ে খুন করা হয়েছে ওই এলাকায়। এই ঘটনার পর থেকে স্বামী-সহ শ্বশুরবাড়ির অন্যান্য লোকজনেরা পলাতক।

কুলতলির কুন্দখালির বাসিন্দা তুহিনা। সম্বন্ধ করে দুই পরিবারের সম্মতিতে গোপালগঞ্জের বাসিন্দা সাগির হোসেনের সঙ্গে বিয়ে হয় তাঁর। অভিযোগ, বিয়ের সময় তুহিনার পরিবারের তরফে পণও দেওয়া হয়। বিয়ের পর প্রথম প্রথম সাগির ও তুহিনার দাম্পত্য জীবন সুখেরই ছিল। তবে কিছুদিন পর থেকে তুহিনার উপর শারীরিক এবং মানসিক অত্যাচার শুরু হয়। অভিযোগ, স্বামী প্রায়শয়ই তুহিনাকে গায়ের রং ‘কালো’ হওয়ায় অপমান করত। এমনকী শাশুড়ি এবং ননদ তাঁকে মারধর করত বলেও অভিযোগ। রবিবার সকালে শ্বশুরবাড়ি থেকেই তুহিনার নিথর দেহ উদ্ধার করা হয়।

[আরও পড়ুন: গেরুয়া শিবিরে ভাঙন অব্যাহত, তারকেশ্বরের শতাধিক বিজেপি কর্মী যোগ দিলেন তৃণমূলে]

কুলতলি থানার পুলিশ খবর পাওয়ামাত্রই ঘটনাস্থলে পৌঁছয়। তুহিনার দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়। বাপের বাড়ির লোকজনের অভিযোগ, মারধর করে খুন করা হয়েছে তাঁকে। এই মর্মে কুলতলি থানায় অভিযোগও জানিয়েছেন তাঁরা। যদিও দেহ উদ্ধারের সময় থেকেই তুহিনার স্বামী-সহ শ্বশুরবাড়ির অন্যান্য লোকজনেরা এলাকাছাড়া। তারা কোথায় গিয়েছে, সে বিষয়ে এখনও জানা যায়নি। কুলতলি থানার পুলিশ ঘটনার তদন্তে নেমেছে।

[আরও পড়ুন: করোনা রোগীর সৎকারে খরচ ১১৫০ টাকা! শ্মশান কর্তৃপক্ষের বিজ্ঞপ্তিতে সমালোচনার ঝড়]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement